দু'আ কবুল হওয়ার প্রকাশ্য ও অপ্রকাশ্য কারণ। দু'আ কবুল হওয়ার প্রকাশ্য ও অপ্রকাশ্য কারণ।। দু'আ কবুল হওয়ার প্রকাশ্য ও অপ্রকাশ্য কারণ।।।

মো: তৌহিদুল ইসলাম ০৬ এপ্রিল,২০২০ ২০ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()

সৃষ্টিকুলের প্রত্যেকেই অভাবী এবং আল্লাহর কাছে যা আছে তার মুখাপেক্ষী। আর আল্লাহ তা’আলা অভাবমুক্ত। - তিনি কারো মুখাপেক্ষী নন। আল্লাহ তা’আলা এরশাদ করেন, “তোমরা আমাকে ডাক আমি তোমাদের ডাকে সাড়া দিব। নিশ্চয় যারা আমার ইবাদত করতে অহংকার প্রদর্শন করে; অচিরেই তারা লাঞ্ছিত অবস্থায় জাহান্নামে নিক্ষিপ্ত হবে”। “আমার বান্দা যদি আপনার কাছে আমার সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করে; আমি তো নিকটেই আছি”। “যে ব্যক্তি আল্লাহর কাছে চায় না তিনি তার প্রতি রাগান্বিত হন”। (তিরমিযি)। নবী করীম (সা:) বলেছেন, “ যে কোন মুসলিম আল্লাহর কাছে দু’আ করবে- দে দু’আয় কোন গুনাহ থাকবে না, কোন আত্বীয়তার সম্পর্ক ছিন্ন করা হবে না। তাহলে আল্লাহ তাকে যে কোন একটি দান করবেন। ১) তার দু’আ দুনিয়াতেই কবুল করা হবে। ২) আখেরাতে উহা সঞ্চয় করে রাখা হবে। ৩) তার দু’আর অনুরূপ একটি একটি বিপদ থেকে তাকে মুক্ত করা হবে”।

    ক) দু’আর পূর্বে কিছু নেক আমল করা। আল্লাহর প্রশংসা করা খ) দু’আর প্রথমে, মধ্যে ও শেষে দরুদ পাঠ করা গ) নিজের পাপের স্বীকারোক্তি দেয়া ঘ) আল্লাহর নে’আমতের শুকরিয়া আদায় করা ঙ) রাতের এক তৃতীয়াংশ অবশিষ্ট থাকার সময়, আযান ও ইকামতের মধ্যবর্তী সময়ে, ওযুর পর, নামাযের শেষে, কুরআন খতম করার সময়, সফরাবস্থায়, মাযলুম দু’আ, সন্তানের জন্য পিতা মাতার দু’আ, কোন মুসলিম ভাইয়ের অনুপস্থিতিতে তার জন্য দু’আ, জুমআর দিনে, রমজানের ইফতারের সময়, সাহরি খাওয়ার সময়, লাইলাতুল কদরে এবং আরাফাত দিবসে। চ) সকল মসজিদ, কা’বার নিকটে, মাকামে ইব্রাহিমের নিকট, ছাফা ও মারওয়া পাহাড়ে, হজ্জ্বের সময়, যমযম পানি পান করার সময়।

     দু’আর পূর্বে তওবা করা, কারো সম্পদ আত্নসাত করে থাকলে তা ফেরত দেয়া। হালাল উপার্জন করা। বেশী বেশী নেক কাজ করা ও হারাম বিষয় থেকে দূরে থাকা। দু’আ অবস্থায়, অন্তর উপস্থিত রাখা, আল্লাহর প্রতি দৃঢ় বিশ্বাস রাখা ও তার স্মরণাপন্ন হওয়া। কাকুতি-মিনতি করা। বিষয়টিকে আল্লাহর নিকট সম্পূর্ণ সোপর্দ করা এবং দু’আ কবুল হবে এরূপ দৃঢ় বিশ্বাস রাখা।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোছাঃ মাকছুদা বেগম
০৬ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:৫২ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ শুভকামনা ও অভিনন্দন। আমার কন্টেন্টগুলো দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল


মো: তৌহিদুল ইসলাম
০৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:১৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ, স্যার।


আব্দুল্লাহ আত তারিক
০৬ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:২৬ অপরাহ্ণ

বাতায়নে সক্রিয় থাকার জন্য ধন্যবাদ, ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন । আপনি ভালো থাকলে ভালো থাকবে দেশ । চমৎকার নির্মাণের জন্য লাইক, কমেন্ট ও রেটিংসহ শুভেচ্ছা ও ভালবাসা রইল । আমার বাতায়ন বাড়িতে আমন্ত্রণ রইল । আমার ২৬ তম কনটেন্ট স্বাধীনতা এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো দেখে মতামত, লাইক ও রেটিং এর প্রত্যাশায় রইলাম। লিংক - https://teachers.gov.bd/content/details/549536


মো: তৌহিদুল ইসলাম
০৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:১৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ, স্যার।


মোঃ ফিরোজ কবির
০৬ এপ্রিল, ২০২০ ১১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

সুন্দর ও শ্রেনী উপযোগী কন্টেন্ট আপলোড করে বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য আপনাকে পূর্ণ রেটিংসহ শুভকামনা ও অভিনন্দন। আমার কন্টেন্ট ও প্রকাশনাগুলো দেখে আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করুন। ভালো লাগলে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল


মো: তৌহিদুল ইসলাম
০৭ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:১৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ, স্যার।


মো: তৌহিদুল ইসলাম
০৬ এপ্রিল, ২০২০ ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ণ

আসুন, আমরা আল্লাহর কাছে বেশি বেশি দু'আ করি... আল্লাহ আরো বেশী দানকারী।