কবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে...???

সঞ্জয় বাছাড় সঞ্জু ২২ জুলাই,২০২০ ৬৩ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৪.৬০ ()

কলেজ কবে খুলবে? এবার কি আমাদের এইচএসসি পরীক্ষা হবে? এইচএসসি পরীক্ষা কবে হবে? এসএসসি এর জিপিএ অনুযায়ী এইচএসসি জিপিএ নির্ধারিত হবে কিনা? করোনা মহামারীতে শিক্ষার্থীদের কমন কিছু প্রশ্ন। কলেজ খুলবে, এইচএসসি পরীক্ষাও হবে। তবে কবে হবে এই প্রশ্নগুলোর সঠিক উত্তর হয়তো আমাদের কারোর জানা নেই, ধারণা করা হচ্ছে খুব দ্রুতই এই প্রশ্ন গুলোর সঠিক উত্তর আমরা পেয়ে যাবো। অলরেডি ২০২০-২১ শিক্ষবর্ষের একাদশ শ্রেনিতে ভর্তির তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক বর্তমানে আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো আগামী ৬ আগষ্ট পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। হয়তোবা এই বন্ধ আরেক ধাপ বাড়িয়ে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হবে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আমার মনে হচ্ছে সরকার সেপ্টেম্বরে কিছু বিধি-নিষেধ, নিয়ম-কানন বেধে দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো খোলার অনুমতি দিবে। যদি সেপ্টেম্বরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো খোলা হয়, তাহলে নভেম্বর- ডিসেম্বর বা আরেকটু হলে ফ্রেব্রুয়ারিতে হয়তো এইচএসসি পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনাটা একটু বেশি ( সবকিছুই করোনা পরিস্থিতির উপর নির্ভর করছে, আমি জাস্ট আমার ধারণাটা শেয়ার করছি)।
এখন যদি নভেম্বর-ডিসেম্বর বা ফ্রেব্রুয়ারিতে এইচএসসি পরীক্ষা হয়, তাহলে এই সল্প সময়ে কিভাবে প্রস্তুতি নিবো? কারণ আমাদের বেশিরভাগ শিক্ষার্থীরা অনেকটা ইঞ্জিন বিহীন ঠেলা গাড়ির মতো। এদেরকে পিছন থেকে ধাক্কা না দিলে শুধু পেট্রোল দিয়ে এদের ইঞ্জিনকে সামনের দিকে নিয়ে যাওয়ার অভ্যাস এদের নেই বললেই চলে। অর্থ্যাৎ কলেজ, প্রাইভেট, কোচিং ছাড়া নিজ চেস্টায় বাসায় বসে পড়ে প্রস্তুতি নেওয়ার মন-মানসিকতা বা অভ্যাস কোনটাই বেশির ভাগ শিক্ষার্থীর নেই ( যদিও এই অবস্থার জন্য আমরা শিক্ষক, অভিভাবক সর্বোপরি আমাদের পরীক্ষা নির্ভর শিক্ষা ব্যাবস্থা দায়ী)। এপ্রিলে পরীক্ষা হলে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের যে প্রস্তুতি ছিলো, করোনা মহামারির কারণে অনেকদিন সবকিছু বন্ধ থাকায় বেশিরভাগ শিক্ষার্থীর প্রস্তুতি সেই আগের মতো আর নেই। অনেকেই অনেক কিছু ভুলে হতাশার মধ্যে আছে। যদিও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক টেলিভিশন, অনলাইনে বিভিন্ন প্লাটফর্মের মাধ্যমে (ফেসবুক লাইভ, জুম, গুগল মিট) শিক্ষার্থীদের পড়াশোনাকে সচল রাখার আপ্রান চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে যে স্মার্টফোন, কম্পিউটারে আমরা রানু মন্ডলের গান, অনন্ত জলিল vs হিরো আলমের বিনোদন দেখতে অভ্যস্থ। হঠাৎ সেটির মাধ্যমে শিক্ষা গ্রহণে অভ্যস্থ হতে আমাদের শিক্ষার্থীদের যেমন সময় লাগছে। তেমনি আমাদের শিক্ষকদেরও অনেক সময় লাগছে, শ্রেণিকক্ষের পরিবর্তে ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে ক্লাস নিতে অভ্যস্থ হতে। তাপরও সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তবে আমরা কতজন শিক্ষার্থীকে পারছি এই অনলাইন ক্লাসে অভ্যস্থ করতে। আমার মনে হয় সর্বোচ্চ ২০-৩০% শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসে অভ্যস্থ হয়ে এর সুফলটা ভোগ করতে পেরেছে। বাকি ৭০-৮০% শিক্ষার্থীদের অভ্যস্থ করতে না পারার কারণ হতে পারে, ১।আমরা শিক্ষকরা
আকর্ষনীয় ভাবে ক্লাস উপস্থাপন করতে পারি নাই। ২। ইন্টারনেট, মোবাইল নেটওয়ার্ক বা মোবাইল ডাটার সমস্যা। ৩। ফিন্যানসিয়াল সমস্য। ৪। অভিভাবক-শিক্ষার্থীদের আন্তরিকতার অভাব। তবে আমি মনে করি শিক্ষক-অভিভাবক-শিক্ষার্থী যদি একটু আন্তরিক থাকতো তাহলে আমরা ১০০% এর সুফল ভোগ করতে পারতাম।
যাইহোক এখন এই সল্প সময়ে কিভাবে পরীক্ষার প্রস্তুতি নিবো। বেশিরভাগ শিক্ষার্থী সবকিছু ভুলে এখন বই দেখলেই তাদের বিরক্তি লাগে। এদিকে আবার ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতিও নিতে বলছে। এখন হঠাৎ যদি পরীক্ষার তারিখ দেয়, আমি নিজেই পরীক্ষার্থী হলে বই-খাতা সবকিছু দূরে রেখে ইউটিউবে যেয়ে রানু মন্ডলের গান শোনতাম (কাউকে কিন্তু ছোট করছি না, সে ভালো গান গাই🤔)। কিন্তু এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সেটা করার কোনো অবকাশ নাই। তাই অযথা সময় নষ্ট না করে, সব হতাশা বা "ভাল লাগে না" অভ্যাস দূরে রেখে পরিস্থিতি অনুযায়ী এখনই উচিত একটু পরিকল্পনা মোতাবেক পড়াশোনা করার। যে বিষয় গুলো মনে হচ্ছে তোমরা ভুলে গেছো, সেই বিষয় গুলো প্রতিদিন একটু একটু করে পড়ার চেষ্টা করবে। করোনা পরিস্থিতি আমাদের নতুন অনেক কিছু শিখিয়েছে। আমাদের লাইফ স্টাইলের অনেক কিছুর পরিবর্তন এনেছে। আমরা আগে যা করতাম না তার অনেক কিছুতেই আমাদের অভ্যস্থ হতে বাধ্য করেছে। তাহলে পড়াশোনার প্রতি তোমরা কেনো আরো একটু আন্তরিক হতে পারবো না। কেনো নিজ চেস্টায় তোমরা তোমাদের প্রস্তুতি নিতে পারবে না? এখনো যথেষ্ট সময় আছে, আশাকরি এই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে পরিকল্পনা মোতাবেক প্রতিদিন একটু একটু পড়াশোনা করে তোমরা তোমাদের পূর্বের হারানো কনফিডেন্স আবার ফিরিয়ে নিয়ে আসবে। এবং সর্বোপরি এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করে, ভালো কোথাও পছন্দের কোনো বিষয়ে পড়ার সুযোগ পাবে।

সঞ্জয় বাছাড় সঞ্জু
প্রভাষক, পদার্থ বিজ্ঞান
জাহানাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এ্যান্ড কলেজ, খুলনা।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ শফিকুল ইসলাম
২৩ জুলাই, ২০২০ ১০:৩৬ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন । আমার আপলোডকৃত কন্টেন্ট দেখে লাইক ও রেটিংসহ মূল্যবান মতামত প্রদানের অনুরোধ রইল।


বিশ্ব নাথ দাস
২২ জুলাই, ২০২০ ১১:৩৪ অপরাহ্ণ

সুন্দর ও শ্রেণি উপযোগী ব্লগ আপলোড করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। লাইক ও পূর্ন রেটিংসহ শুভকামনা রইল। আমার তৈরীকৃত এ পাক্ষিকের উদ্ভাবনের গল্প দেখে আপনার সুচিন্তিত মতামত সহ আমার মেয়ে বিজয়ার স্পোকেন ইংলিশ ক্লাশগুলো দেখে বিজয়ার ইউটিউব চ্যানেলটি Bijoya Dot Net সাবস্ক্রাইব করার বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি।


মোঃ রওশন জামিল
২২ জুলাই, ২০২০ ০৭:৫৩ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ শুভ কামনা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। সুস্থ্য থাকুন।


MOHAMMAD DAUD
২২ জুলাই, ২০২০ ০৩:৫১ অপরাহ্ণ

রেটিং সহ ধন্যবাদ


আবু হোসাইন মোঃ আসাদুল ইসলাম
২২ জুলাই, ২০২০ ০৯:১৮ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণরেটিংসহ ধন্যবাদ ও শুভকামনা। আমার এ পাক্ষিকের ৩৬তম আপলোডকৃত ৫ম শ্রেণির আয়ত, নির্দেশনামুলক চিত্র অঙ্কন (পৃষ্টা-১০১) কনটেন্ট দেখে মূল্যবান লাইক, রেটিং ও মতামত দানের জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।