মুসলমানদের একতাই বল একতাই শান্তি

মো: ফজলুল হক ০১ এপ্রিল,২০২১ ৩১৫ বার দেখা হয়েছে ২২১ লাইক ৪২ কমেন্ট ৪.৯৯ (২৪৮ )

মোমিন বান্দার জন্য একতাই বল। একতাই শান্তি।  পৃথিবীর ইতিহাসে এ জাতি তখনই পরাজিত ও লাঞ্ছিত হয়েছে, যখন তাদের পরস্পরের মাঝে বিভেদ ও বিচ্ছিন্নতা জায়গা করে নিয়েছে।

আর তারা যখন নিজেদের ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্য ও সংহতির প্রাচীর নির্মাণ করতে পেরেছে, হাতে হাত ও কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলতে সক্ষম হয়েছে, তখন তাদের কোনো শক্তিই পরাজিত করতে পারেনি। পারেনি নিগৃহীত ও দেশান্তর করতে। এ কারণেই সর্বযুগে ইসলাম ও মুসলমানদের শত্রুদের প্রধান কাজ ছিল, মুহাম্মদ (স.)-এর উম্মতদের একতা বিনষ্ট করে তাদের স্বার্থসিদ্ধি করা। তারা চায়,  এ জাতি যেন কিছুতেই এক কাতারে আসতে না পারে। তাদের মাঝে যেন ঐক্যের সুর না বাজে। তারা যেন শতদল উপদলে বিভক্ত ও বিচ্ছিন্ন থাকে। এ উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে শত্রুপক্ষ এমন কোনো উপায় নেই যা নেয়নি। শত্রুরা আজও এ হাতিয়ার ব্যবহার করেই ঠুনকো ও তুচ্ছ বিষয়কে সামনে এনে আমাদের ধ্বংস ও চূড়ান্ত পরাজয়ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। 

 ইসলামের শুরু যুগ থেকেই মুসলমানদের সঙ্গে ইহুদি ও খ্রিস্টানদের সঙ্গে বৈরিতা চলে আসছে। বর্তমান বিশ্বে এই দুই সম্প্রদায় ছাড়াও অন্যান্য সম্প্রদায়ও যুক্ত হয়েছে মুসলমানদের নিশ্চিহ্ন করে দেওয়ার মিশনে। তারা সবাই এ ক্ষেত্রে এক  ও অভিন্ন নীতিতে চলছে। কাশ্মীর, পূর্ব-তৈমুর, আফগানিস্তান, ফিলিস্তিন, আরাকান, ইরাক, কসোভো, নাইজেরিয়া, উইঘুর, আলজেরিয়া, সুদান ও ফিলিপাইনের দিকে তাকালে বিষয়টি সূর্যের আলোর মতো পরিস্কার বোঝা যায়। আমার প্রিয় মাতৃভূমিও দেশীয় ও বৈশ্বিক ষড়যন্ত্রের বাইরে নয়। 

এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, মুসলমানদের পারস্পরিক দ্বন্দ্ব-সংঘাত ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের কারণেই বর্তমান বিশ্বের উদ্বাস্তুদের ৯২ ভাগই মুসলমান। কথা ছিল, মুসলমান জাতি বিশ্বের নেতৃত্ব দিবে। অন্ধকার সমাজকে কোরআন ও সুন্নাহ'র আলোয় আলোকিত করবে। সমাজ থেকে জুলুম ও পাপাচার দূর করে ন্যায় ও ইনসাফ প্রতিষ্ঠা করবে। আফসোস, মুসলমানরা নিজেরাই আজ অন্ধকারের অতল গহ্বরে নিমজ্জিত। নিজেরাই ন্যায় ও ইনসাফের জন্য হাহাকার করছে।  শত্রুপক্ষের কাছে নিজেদের স্বকীয়তা ও সম্ভ্রম বিকিয়ে দিয়ে এ জাতি আজ পথের ফকির। লাঞ্ছিত ও অপদস্ত। নিজেদের পরিচয়, পরিচিতি, ঐতিহ্য ও সোনালী ইতিহাস সব ভুলে গেছে মুসলমানরা। মুসলমান জাতি আজ কোরআন থেকে এবং সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব নবীজি সা. -এর জীবন থেকে শিক্ষা নেয় না। শিক্ষা নেয় মানব রচিত আদর্শ থেকে। 

প্রিয় ভাই আমার, আমাদের সবার আল্লাহ এক, কোরআন এক, নবী এক, আদর্শ এক, সবাই একই পথের পথিক; তাহলে এতগুলো মতপথ কেন? কেন এত বিভক্তি ও বিচ্ছিন্নতা? 

মুসলমানদের অনৈক্য শুধু নিজেদের বা একটি সমাজ কিংবা একটি দেশের ক্ষতি বয়ে আনে না। বরং গোটা বিশ্বকে ভেঙে টুকরো টুকরো করে দেয়। বিদায় হজের ভাষণে ঐক্যের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রিয় নবী (সা.) কত চমৎকার বলেছেন, আমার ভাইয়েরা, আমার কথা মনোযোগ দিয়ে শোনো। জেনে রেখো, সব মুসলমান পরস্পর ভাই ভাই। সবাই একই ভ্রাতৃত্ব বন্ধনে আবদ্ধ। দুনিয়ার সব মুসলমান একই অবিচ্ছেদ্য ভ্রাতৃসমাজ। 

মনে রেখো- বাসভূমি ও বর্ণবৈচিত্র্য নির্বিশেষে সব মুসলমান সমান। আজ থেকে বংশের গৌরব বিলুপ্ত হলো। পরস্পরের প্রাধান্যের একমাত্র মাপকাঠি হলো খোদাভীতি বা সৎকর্ম। সে ব্যক্তিই তোমাদের মধ্যে সবচেয়ে ভালো, যে নিজ আমলের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে।

প্রিয় ভাই আমার, ইসলামের আগমন এমন এক সময় হয়েছিল, যখন পৃথিবীতে জালেম ও জুলুমের জয়জয়কার ছিল। তখন মানুষের রক্ত ও জীবনের কোনো মূল্য ছিল না। তুচ্ছ কারণে মানুষ হত্যা বড় কোনো অপরাধ ভাবা হতো না। মানুষ সবখানে ন্যায় ও ইনসাফের সন্ধান করতো। কিন্তু, কেউ তাদেরকে নিরাপত্তা দিতে পারতো না।  বরং তাদেরকে শিক্ষা দেয়া হতো বর্বরতা ও হিংস্রতা। তাইতো সে যুগকে বলা হয় অন্ধকার ও বর্বরতার যুগ। ঠিক এমন সময় শান্তির পয়গাম নিয়ে দুনিয়ায় আগমন হয় ইসলামের। কোরআন ও সুন্নাহর আলোয় আলোকিত হয় অন্ধকার সমাজ। মিটে যায় সব জুলুম ও অত্যাচার। 

প্রিয় পাঠক, আজ সেই একই কোরআন ও একই হাদিস বিদ্যমান। একটি আয়াত ও একটি হাদিসেরও পরিবর্তন হয়নি। সে সময় যিনি কর্তৃত্ব চালাতেন, সেই মহান সত্তা আল্লাহতায়ালাই আজ আমাদের প্রভু। অথচ সেযুগ ও এ যুগের মধ্যে কতো তফাত। ওই যুগের মানুষ ছিল ইনসাফকারী। আজ আমরা নিজেরাই মাজলুম জাতি। নিজেরাই ন্যায় ও ইনসাফের অন্বেষণকারী। তারা ছিল শাসক। আর আমরা শাসিত। ইতিহাসের পাতা উল্টালে বোঝা যায়, প্রত্যেক যুগে মুসলমানদের অধঃপতন ও পরাজয়ের মূল কারণ ছিল বিচ্ছিন্নতা। অথচ মুসলমানদের পরস্পরের মাঝে একতা রক্ষা করা ইসলামের ফরজ (আবশ্যকীয়) বিধানের অন্তর্ভুক্ত। এই বিধান না মানার কারণেই যত লাঞ্চনা ও অপদস্ততা। 

ইসলামের শুরু যুগে মুসলমানদের ঈমানের পরে  প্রধান শক্তি ছিল একতা। তাদের সবার মত-পথ ও মিশনকে যখন তারা এক বানিয়েছিল, তখন কোনো অপ্রতিরোধ্য শত্রুশক্তি তাদের পরাজিত করতে পারেনি। আল্লাহতায়ালা পবিত্র কোরআনে একতা রক্ষার বিষয়ে অনেক নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি বলেন, তোমরা সবাই আল্লাহর রুজ্জুকে শক্তভাবে ধারণ কর। আর তোমরা পরস্পরে বিচ্ছিন্ন হয়ো না।’ (সুরা আল-ইমরান : আয়াত ১০৩)

নবীজি (সা.) বলেছেন, মেষপালের নেকড়ে বাঘের মতো শয়তান মানুষের জন্য নেকড়ে বাঘস্বরূপ। যে মেষপালের মধ্য থেকে একটি মেষ দল থেকে আলাদা থাকে কিংবা খাদ্যের সন্ধানে একাকি দূরে চলে যায় অথবা যে মেষ অলসতাবশত দল ছেড়ে এক প্রান্তে পড়ে থাকে, সেটিকে নেকড়ে বাঘ ওঠিয়ে নিয়ে যায়। সাবধান, তোমরা কখনও জামায়াত ছেড়ে একাকি দুর্গম পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ পথে চলবে না। সুতরাং সব সময় জামাআত তথা মুসলিম জনসাধারণের সঙ্গে থাকবে। (মুসনাদে আহমদ, মিশকাত)

মুসলমানরা যে জনপদে থাকবে, সেখানে সংখ্যায় যদি তারা অল্পই হয়, তা হলে একজনকে আমির (নেতা) বানিয়ে বাকিরা তার দিকনির্দেশনায় চলবে। এ বিষয়ে নবীজি সা. বলেন, তিন জন মানুষও যখন জনমানবহীন মরুভূমিতে থাকবে তখন তাদের একজনকে নেতা নিযুক্ত করে তার অনুসরণ না করে বিচ্ছিন্ন থাকা বৈধ নয়। (মুসনাদে আহমদ)

প্রিয় পাঠক, তাই আসুন আমরা নিজেদের শতধাবিভক্তি ভুলে গিয়ে দলমত নির্বিশেষে সবাই এক হই। হাতে হাত ও কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মুসলমানদের দুর্দিন ও সংকট নিরসনে কার্যকরী ভূমিকা পালন করি। আল্লাহতায়ালা আমাদের সহায় হোন। আমিন।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোহাম্মদ আবদুল কুদ্দুস
০৮ এপ্রিল, ২০২১ ০৪:৩৩ অপরাহ্ণ

কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষকদেরকে উপজেলা শিক্ষা অফিসার জনাব মোসাম্মৎ জাহানারা খানম মহোদয়ের নির্যাতনের হাত থেকে বাঁচানোর কি কেউ নেই? ঘুষ ছাড়া একটা কাজও তিঁনি করেন না। একটা কাজে কয়েকবারও ঘুষ দিতে হয়। EFT ফরম পূরণের জন্য প্রথমবার নিল ১৫০ টাকা ।আবার নিল ১০০ টাকা। আরো করবার দিতে হয় আল্লাহ্‌ ভাল জানেন। ঘুষ ছাড়া কোন কাজে শিক্ষা অফিসে গেলে তিঁনি কি খারাপ ব্যবহার বুঝানো সম্ভব নয়। এইভাবে শিক্ষকরা কি সারা জীবন শুধু ঘুষ দিয়েই যাবে? শিক্ষকদের পাশে কি কেউ দাঁড়াবে না?এই শিক্ষা অফিসার যতদিন আছেন ততদিন একটি কাজও ঘুষ ছাড়া হয় নাই।


SIddiqur Rahman
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৪৬ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


শীতল কুমার সাহা
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


শাহিন
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৪০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


SARA HAQUE
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৩৯ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


SARA FARIN
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৩৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৩৬ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


RAFEKUL ISLAM
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৩৫ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


NIRANJAN SAHA
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৩২ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


নিবাস চন্দ্র দাস
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৩১ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


নাসিমা খাতুন
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:২৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


Mukta Hossain
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:১২ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মতিউর রাহমান
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:০৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মোঃ মোরশেদ আলম
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:০৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


Md.Mokaddas Ali
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:০৫ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মোঃ মাহবুবুল হক ফারুকী
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:০২ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


খলিলুর রহমান
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:০০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মাহমুদা আক্তার
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৫৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মোঃ মাহবুবুল হক ফারুকী
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৫৬ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


লিমা হক
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৫৩ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


কামাল উদ্দিন
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৪৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


Jesmin
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৪৫ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


JAWAD ABRAR
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৪৩ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


MD. JALAL UDDIN
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৪২ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


হাছনা হেনা
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৪০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


HAQUE SHAHIDA
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৩৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মোছাঃ নাইচ আকতার
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৮:৪৩ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার। আমার কন্টেন্ট দেখার জন্য অনুরোধ রইল।


মোঃ ফজলুল হক
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:২৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


FARIA CHAITY
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:২৬ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মোঃ বোরহান উদ্দিন
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:২৫ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


BORHAN UDDIN
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:২৪ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


মো. আজহারুল ইসলাম
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:২৩ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


Aklima Akther
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:২১ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


সাজেদা আক্তার
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:২০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


আবুল কাশেম মিয়া
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:১৯ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


ABUL KASEM
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৬:১৮ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন রইলো।


রমজান আলী
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আবারও ধন্যবাদ।


মোঃ মামুনুর রহমান
০২ এপ্রিল, ২০২১ ০৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিব শতবর্ষের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। মানসম্মত ও শ্রেণি উপযোগী চমৎকার কনটেন্ট, ভিডিও কনটেন্ট, ব্লগ পোস্ট ও উদ্ভাবনী গল্প প্রভৃতি তৈরি করে আমাদের প্রিয় শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি এবং পূর্ণ রেটিং কামনা করছি। পাশাপাশি আমার কনটেন্টগুলোতে বিশেষ করে ১৮/০৩/২১ তারিখের এই পাক্ষিকের ৫০তম কনটেন্ট অর্থাৎ ৮ম শ্রেণির ইংরেজি ১ম পত্রের "Nakshi Kantha" সম্পর্কিত কনটেন্ট এবং ২০/০৩/২০২১ তারিখের ভিডিও কনটেন্টটিতে লাইক, কমেন্ট, শেয়ার ও পূর্ণ রেটিং প্রদানের জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। এছাড়াও সম্মানিত প্যাডাগোজি রেটার ও এডমিন প্যানেল মহোদয়, সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা, সেরা উদ্ভাবক, আইসিটি অ্যাম্বাসেডরবৃন্দ ও সেরা অনলাইন পারফর্মারদের নিকট পূর্ণ রেটিং আশা করছি। বাতায়ন আইডি : mamunggghsc10 , Profile Name : মোঃ মামুনুর রহমান , Content Link : https://www.teachers.gov.bd/content/details/904757 Video content link: https://www.teachers.gov.bd/content/details/906032


লুৎফর রহমান
০২ এপ্রিল, ২০২১ ১২:৩৮ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার এ পাক্ষিকে আপলোডকৃত ৫৬ তম কনটেন্ট ও ব্লগ দেখে লাইক,গঠন মূলক মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। কনটেন্ট লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/913039


মোঃ সাইফুর রহমান
০১ এপ্রিল, ২০২১ ১১:১৮ অপরাহ্ণ

অনেক সুন্দর উপস্থাপন। লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা রইল। বাতায়নের সন্মানিত শ্রদ্ধেয় এডমিন, প্যাডাগোজি, রেটার মহোদয়, সকল সেরা কনটেন্ট নির্মাতা,সকল সেরা উদ্ভাবক, সকল সেরা নেতৃত্ব, সকল সেরা অনলাইন পারফর্মার ও সকল জেলা অ্যাম্বাসেডর, সকল সক্রিয় শিক্ষকবৃন্দ আমার আপলোডকৃত "স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী "স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল বাংলাদেশে উত্তরণ" শিরোনামে উদ্ভাবনের গল্প ও ব্লগ দেখে লাইক ও পূর্ণ রেটিং দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। ধন্যবাদ।


মোহাম্মদ শাহাদৎ হোসেন
০১ এপ্রিল, ২০২১ ১১:০০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আবারও ধন্যবাদ।


রমজান আলী
০১ এপ্রিল, ২০২১ ১০:৪০ অপরাহ্ণ

চমৎকার এবং মানসম্মত কনটেন্ট / ব্লগ আপলোড করে বাতায়নকে সমৃদ্ধি করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। লাইক, কমেন্ট ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। সেই সাথে আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট "আলোর প্রতিফলন", পদার্থ বিজ্ঞান, ১০ম শ্রেণি, দেখে ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট ও রেটিং প্রদানের জন্য আপনার নিকট বিনীত আবেদন করছি। পরিশেষে,আপনার সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি, আপনাকে ধন্যবাদ। আমার কনটেন্ট লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/904247