জ্যাঁ জ্যাক রুশো, ফরাসি বিপ্লবের নায়ক

মোঃ তানভীর হোসেন ২৮ জুন,২০২১ ৩৭৭ বার দেখা হয়েছে ৩৯ লাইক ৭২ কমেন্ট ৪.৯০ (৪১ )

জ্যাঁ জ্যাক রুশো

ফরাসি দার্শনিক, সমাজবিজ্ঞানী এবং আলোকিত যুগের অন্যতম প্রবক্তা রুশো ১৭১২ সালের ২৮ জুন জেনেভায় জন্মগ্রহণ করেন। জন্মসূত্রে সুইজারল্যান্ডের অধিবাসী হলেও রুসো ছিলেন ফরাসি জ্ঞানালোক আন্দোলনের অন্যতম প্রতিনিধি এবং ইউরোপের প্রগতিবাদী ও গণতান্ত্রিক সমাজচেতনার প্রধান পৃষ্ঠপোষক। জীবনের বেশির ভাগ সময় তিনি ফ্রান্সে কাটিয়েছেন। তার দর্শনের বিষয় ছিল রাজনীতি। লিখতেনও ফরাসি ভাষায়।

জন্মদানকালে রুশোর মা মারা যান। বাবাই তাকে বড় করে তোলেন। বাবা যেমন একদিকে মাতৃহারা ছেলেটিকে স্নেহ ও আদর যত্নে আগলে রাখতেন আবার জন্মদানকালে মা মারা যাওয়ায় তাকে ‘অপয়া’ বলে ভৎসর্না করতেন। এভাবে রুশোর বয়স যখন দশ তখন তার বাবা তাকে ঘরে রেখে একদিন চিরকালের জন্য নিরুদ্দেশ হলেন। ঘটনা রুশোকে যেমন বেদনাহত করেছে তেমনি সারাজীবন এক ধরনের পাপবোধও তাকে তাড়িয়ে বেড়িয়েছে হন। আত্মীয়রা পারিবারিক ঘড়ির ব্যাবসায় তাকে কাজে লাগাতে চাইলে ১৬ বছর বয়সে রুসো বাড়ি থেকে পালিয়ে যান এবং ভবঘুরের মতো বিভিন্ন স্থানে বিচিত্র পেশায় জীবিকা উপার্জন করেন। ।

১৭২৮ সালের দিকে মাদাম দ্য ওয়ারেনের সংস্পর্শে আসেন, পরবর্তীকালে যাঁর সাথে রুসোর প্রণয় সম্পর্কও গড়ে ওঠে। তিনি ভদ্রমহিলার অনুপ্রেরণায় ক্যাথলিক ধর্মে দীক্ষিত হন। নয়-দশ বছর তার কাছেই ছিলেন রুসো। তাদের মধ্যে একপর্যায়ে মনোমালিন্য হলে রুসো লিয়োঁ শহরে চলে যান ও সেখানে গৃহশিক্ষক হিসাবে কিছুদিন কাজ করেন।  ১৭৪২ সালে প্যারিসে নিবাস গড়েন। প্রথম দিকে স্বরলিপি নকল করে উপার্জনের চেষ্টা করেন। এরপর মাদাম দুপাঁ নামের জনৈক অভিজাত মহিলার ব্যক্তিগত সহকারীর চাকুরী লাভ করলে আর্থিকভাবে খানিকটা সচ্ছল হন। 

আমস্টার্ডাম থেকে প্রকাশিত হয় কালজয়ী রাষ্ট্রদর্শন সামাজিক চুক্তি Du Contrat Social, Principes du droit politique (১৭৬২), এবং শিক্ষাদর্শন এমিল Émile (১৭৬২) । গ্রন্থদ্বয় প্রকাশিত হলে রুসো একই সাথে গির্জা ও রাজতন্ত্রের রোষানলে পড়েন। ফরাসি আইনসভা এমিল বইটি পোড়ানোর ও রুসোকে গ্রেফতারের আদেশ দেয়। হল্যান্ড ও সুইজারল্যান্ডেও নিষিদ্ধ ঘোষিত হয় গ্রন্থটি।

রুশোকে ফরাসি বিপ্লবের মূল কারিগর মনে করা হয়। তিনি তার লেখনির মাধ্যমে ফরাসি বিপ্লবের অগ্নিস্ফুলিঙ্গ জাগ্রত করতে সক্ষম হন।তিনিই প্রথম উল্লেখ করেন,"মানুষ জন্মগতভাবে স্বাধীন, কিন্তু সমাজ তাকে শৃঙ্কলিত করে। (Man is born free but everywhere he is in chains)" তিনি উল্লেখ করেন পূর্বে মানুষ প্রকৃতির রাজ্যে স্বাধীন ছিল। কিন্তু ব্যক্তিমালিকানার ধারণা সৃষ্টি হলে সমাজে বৈষম্য সৃষ্টি হয়।

রুসোর রাজনৈতিক চিন্তাধারা ফরাসি বিপ্লবকে যেমন প্রভাবিত করেছে, তেমনি পরবর্তীকালে জাতীয়তাবাদের বিকাশেও ভুমিকা রেখেছে। তিনি আত্মজৈবনিক রচনাশৈলীতে আধুনিক ধারার সূত্রপাত করেন এবং তার লেখনীতে মন্ময়ী (subjective) চেতনার বিকাশের প্রভাব হেগেল ও ফ্রয়েডসহ অনুবর্তী অনেক চিন্তাবিদের মাঝেই সুস্পষ্ট। তার রচিত উপন্যাসগুলি ছিল একদিকে অষ্টাদশ শতকের জনপ্রিয় বেস্টসেলার এবং একই সাথে সাহিত্যে রোমান্টিকতাবাদের অন্যতম উৎস। তাত্ত্বিক ও সুরকার হিসাবে পাশ্চাত্য সঙ্গীতেও তার অসামান্য অবদান রয়েছে।

জ্যাঁ জ্যাক রুশোর রূপ

প্রকৃতিবাদী শিক্ষা

রুশোর শিক্ষানীতিকে প্রকৃতিবাদী বলা হয়। তাঁর মতে বয়স্ক লোক যে শিক্ষার ব্যবস্থা করেন তা বয়স্কদের প্রয়োজন অনুযায়ী করা হয়। রুশোর মতে শিশুর বৃত্তিগুলির সর্বাঙ্গীন বিকাশের উপযুক্ত শিক্ষা দিতে হবে। শিশু পিতা-মাতা বা শিক্ষকদের নিকট হতে যে শিক্ষা লাভ করে তা সম্পূর্ণ নয় বরং ভেজালপূর্ণ। শিশুর আসল শিক্ষা লাভের ক্ষেত্র হলো প্রকৃতি। তাঁর মতে, “Nature is the best teacher”. প্রকৃতির দরবার হতে শিশু হাতে-কলমে শিক্ষা লাভ করবে। রুশো শিশুকে সব ধরণের বন্ধন হতে মুক্ত রাখতে চাইলেন। শিশুকে বেশি জামা-কাপড় পরানো চলবে না। সে প্রয়োজন মত ঠান্ডা পানিতে গোসল করবে, স্বাভাবিক চলাফেরা করবে। সে কোনোভাবেই অভ্যাসের দাস হয়ে উঠবে না।

রুশোর প্রকৃতিবাদের মৌলিক তত্ত্ব

সৃষ্টিকর্তার হাত হতে যা প্রথমে আসে তা তখন পবিত্র থাকে। কিন্তু মানুষের কাছে সব কিছুই বিকৃত হয়ে যায়। রুশোর মতে, জগতই একমাত্র বই, প্রকৃতিই একমাত্র শিক্ষক, ও তথ্যই একমাত্র শিক্ষা। এই তিনটির একত্রে সম্বনয় না হলে শিক্ষজা থেকে যায় কৃত্রিম, অসম্পূর্ণ ও ত্রুটিপূর্ণ। রুশো ক্রমবিকাশের নীতিতে বিশ্বাসী। শিশুর মনের ক্রমবিকাশ অনুযায়ী শিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। রুশোর মতে শহর হলো মানব জাতির গোরস্থান। শিশুর শিক্ষা হবে বাধাহীন।

প্রাকৃতিক ফলাফল তত্ত্ব

শিশু কাজ করে দেখে, ঠেকে ও স্বেচ্ছাপ্রণোদিত হয়ে শিখবে। তাঁর নৈতিক শিক্ষাতেও মানুষের কোন হস্তক্ষেপ থাকবে না। প্রকৃতিই তার একমাত্র শিক্ষক। রুশোর এই তত্ত্বটির নাম প্রাকৃতিক ফলাফল তত্ত্ব। শিশুর ভাল-মন্দ কাজের পুরষ্কার মানুষ দিবে না, দিবে প্রকৃতি। শিশু কোন কাজটি ভালো, কোন কাজটি মন্দ তা উপলব্ধি করবে। এটিই প্রাকৃতিক তত্ত্ব।

রুশোর শিক্ষানীতি

১। শিশুর শিক্ষা প্রকৃতি অনুযায়ী হবে। প্রকৃতি অর্থ হলো স্বভাবজাত ক্ষমতা, রুচি, বুদ্ধি, প্রবণতা।

২। শিক্ষা হলো শিশুর সহজ বিকাশ, বাহির হতে তাঁর বিকাশে বাধা সৃষ্টি কাম্য নয়।

৩। শিক্ষার অর্থ জ্ঞান অর্জন নয়। শিশুর স্বভাবজাত শক্তগুলোর পুষ্টি ও উৎকর্ষ সাধন।

৪। পিতা-মাতা বা বয়স্কদের চাহিদা অনুযায়ী শিক্ষার প্রকৃতি নির্ধারিত হবে না, শিশুর প্রয়োজন অনুযায়ী শিক্ষানীতি নির্ধারিত হবে।

৫। প্রকৃতি প্রদত্ত শক্তির ক্ষেত্র শিশুতে শিশুতে যে তফাৎ তা বিবেচনা করে শিক্ষানীতি প্রণীত হবে।

৬। শিশুর সক্রিয়তা ও স্বাস্থ্য ভালো রাখা বিশেষ শিক্ষার অঙ্গ।

৭। শিক্ষা আসবে ইন্দ্রিয়ের মাধ্যমে অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে।

৮। শিক্ষকের কাজ অন্তরাল থেকে শিশুকে সাহায্য করা।

 

 

রুশোর শিক্ষানীতির স্তরভেদ

রুশো শিক্ষার্থীর জীবনকে শৈশব হতে পরিণত বয়স পর্যন্ত চারটি শ্রেণিতে বিভক্ত করেছেন। যথা-

প্রথম স্তর: জন্ম হতে পাঁচ বছর

প্রথম স্তরের পাঁচ বছর পর্যন্ত শিক্ষার লক্ষ্য হবে কী করে শিশুকে সুস্থ সবল ও কষ্টসহিষ্ণু করে তোলা যায়। এই বয়সে পিতা স্বাভাবিক শিক্ষক ও মাতা ধাত্রী। রূশো প্রথম হতেই প্রাকৃতিক পরিবেশে শিশুর স্বভাব অনুযায়ী বিকাশের পক্ষপাতি। শিশুকে সব রকম কৃত্রিমতা হতে দূরে রাখতে হবে। এই বয়সে শিশু সব রকম স্বাধীনতা ভোগ করবে। কোনো শাসনের কড়াকড়ি থাকবে না। শিশু উম্মুক্ত আলো-বাতাসে খেলবে। খেলার সামগ্রী হবে সাধারণ, প্রকৃতি হতে সংগ্রহ করা। যেমন গাছের ফুল, ফল, বীজ ইত্যাদি। এই স্তরে সে কথা বলা শিখবে। তার সঙ্গে সহজভাবে কথা বলতে হবে। এই স্তরের শিক্ষা মূলত দৈহিক। কোনো রূপ পুস্তকের বোঝা তার ওপর চাপানো যাবে না বা উপদেশ দেয়া হবে না। আর দেহ হবে সবল, সুষ্ঠু, কর্মঠ, সে হবে সাহসী এবং বুদ্ধি হবে অধিকৃত ও পুষ্ট।

দ্বিতীয় স্তর: পাঁচ হতে বারো বছর

এই বয়স মানব জীবনের সবচেয়ে জটিল সংকটের সময়। এই সময়ে শিশুকে নেতিবাচক শিক্ষার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত করতে হবে। রুশোর মতে, শিশুর মানসিক গঠনের জন্য কোনো শিক্ষার দরকার নেই। কীভাবে পড়বে তাও শিক্ষার প্রয়োজন নাই। খোলা চোখ, খোলা মন নিয়ে প্রকৃতির নিকট হতে সে বাস্তব শিক্ষা লাভ করবে। শিশুরা অত্যন্ত চঞ্চল ও কৌতূহলময়। শিশু তার কৃতকর্মের ফলাফলের মধ্য দিয়ে শিক্ষা লাভ করবে। এই সময় কিছু কিছু শিক্ষা শুরু হয়। যেমন- পারিপার্শ্বিক প্রকৃতি হতে বর্ণ, দৈর্ঘ্য, প্রস্থ, ঘনত্ব, গন্ধ, স্পর্শ ইত্যাদি শিখবে। রুশো বলেন, পূর্ব হতেই পরিকল্পিত শিক্ষা ব্যবস্থা শিশুকে জানিয়ে দেয়া চলবে না। শিক্ষা গড়ে তুলতে হলে শিশুর প্রয়োজন অনুসারে অর্থাৎ শিশু শিক্ষাকে অনুসরণ করবে না, শিক্ষাই শিশুকে অনুসরণ করবে।

 

তৃতীয় স্তর: বারো হতে পনেরো বছর

এই সময়কে শিশুর ইতিবাচক শিক্ষার যুগ বলা হয়। এই বয়সেই শ্রম, নির্দেশ পড়া ও অবলোকনের দ্বারা জ্ঞার্নাজনের সময়। রুশো বলেন, শিশু পরিপূর্ণ মানুষ নয়, সে পূর্ণ মানুষের সফল সংস্করণ মাত্র। শিশু যেন নিজের ইচ্ছায় বিবিধ বিষয় শিক্ষা করে। শিশু যাতে শিখতে আগ্রহী হয় সে জন্য তাকে বুঝে শিক্ষককে উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। এই পর্বে একটি মাত্র পুস্তক পাঠ্যরূপে নির্দিষ্ট তা হচ্ছে রবিনসন ক্রুশো।

চতুর্থ স্তর: পনেরো হতে বিশ বছর

মনোবিজ্ঞানীদের মতে কৈশোর ও যৌবনের সন্ধিলগ্ন মানব জীবনের অতিশয় তাৎপর্যপূর্ণ। প্রথম তিনটি স্তরের উদ্দেশ্য ছিল শিশুর আত্মবিকাশ। আর এই স্তরে শিশুর অনুভূতি, সমাজবোধ ও নীতিজ্ঞান বিকাশ লাভ করবে। মানুষ সামাজিক জীব। সে সমাজে বাস করে, মানুষের সাথে মিলেমিশে, তাদের সুখ-দুঃখের সাথে জড়িত হয়ে, মানুষকে ভালবাসতে শিখবে।

নারী শিক্ষা

মেয়েদের শিক্ষা সম্পর্কে রুশোর মতবাদ জানা যায় এমিল (১৭৬২) গ্রন্থের পঞ্চম খন্ডে। এমিল নামক একটি শিশুর জন্ম হতে যৌবন পর্যন্ত বিভিন্ন স্তরের শিক্ষা ব্যবস্থা বিশদরূপে পুস্তকটিতে বর্ণিত হয়েছে। এই বইটিতে শিক্ষার তিনটি বিষয়ের উপর দৃষ্টি দেবার কথা বলা হয়েছে। যথা- প্রাকৃতিক ও নেতিবাচক শিক্ষা, সামাজিক ও নৈতিক শিক্ষা এবং নাগরিক ও রাজনৈতিক শিক্ষা। এতে সোফির শিক্ষা ব্যবস্থা আলোচনা করে নারীকে পুরুষের জীবন সঙ্গিনী হবার জন্য শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। রুশোর মতে, সংস্কৃতিবান নারী তার স্বামী, সন্তান, পরিবার তথা সকলের জন্য অলংকার। স্বামীকে সুখী রাখার জন্য যে সব গুণের প্রয়োজন তা জানা ও সন্তান পালনের উপযুক্ত ধাত্রী বিদ্যা অর্জন করাই হবে মেয়েদের শিক্ষা।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
আবু নাছির মোঃ নুরুল্লা
১৪ জুলাই, ২০২১ ১১:২০ পূর্বাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং ও লাইকসহ শুভকামনা ও অভিনন্দন। আমার কন্টেন্ট দেখে লাইক কমেন্টস ও রেটিং দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


শাহিনা খাতুন
১৪ জুলাই, ২০২১ ০২:২০ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট ও ব্লগ দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ প্রত্যাশা করছি।


মোহাম্মদ শাহ আলম
১৩ জুলাই, ২০২১ ০২:৫৩ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত ব্লগ দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি


মোঃ গোলাম ওয়ারেছ
০৯ জুলাই, ২০২১ ০৫:৪৭ অপরাহ্ণ

Best wishes


রিপন চন্দ্র নায়ক
০৯ জুলাই, ২০২১ ০৭:১৮ পূর্বাহ্ণ

ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।


অনিরুদ্ধ বৈরাগী
০৮ জুলাই, ২০২১ ০৯:০৮ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কন্টেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি ।


হাফিজা খানম
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৩:১০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোঃ আব্দুল আহাদ
০১ জুলাই, ২০২১ ০৫:১৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


ইশরাত জাহান
০১ জুলাই, ২০২১ ০২:৫২ অপরাহ্ণ

Best wishes.Please visit my page.


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


ড. মোঃ আকতারুল ইসলাম
০১ জুলাই, ২০২১ ১২:১৮ অপরাহ্ণ

মানসম্মত লিখা আপলোড করে বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কন্টেন্ট, ব্লগ ও চিত্র দেখে আপনার গঠনমূলক মতামত প্রদানের জন্য অনুরোধ করছি।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোঃ মিজানুর রহমান
০১ জুলাই, ২০২১ ১২:১১ অপরাহ্ণ

শুভকামনা রইল।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


Md. Ayub Ali
৩০ জুন, ২০২১ ০৬:৫৯ অপরাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম। লাইক রেটিং সহ আপনার জন্য রইলো শুভকামনা।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


এম. এ. ওহাব বুলবুল
৩০ জুন, ২০২১ ০৫:৫৪ অপরাহ্ণ

অসাধারণ এবং গুরুত্বপুর্ণ তথ্য শিক্ষক বাতায়নে আপলোড করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


এম. এ. ওহাব বুলবুল
৩০ জুন, ২০২১ ০৫:৫৩ অপরাহ্ণ

অসাধারণ এবং গুরুত্বপুর্ণ তথ্য শিক্ষক বাতায়নে আপলোড করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


Pravaboti Biswas
৩০ জুন, ২০২১ ০১:০৮ অপরাহ্ণ

চমৎকার উপস্থাপন লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।


মোঃ তানভীর হোসেন
০৫ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


Afroja Bulbul
৩০ জুন, ২০২১ ০৭:৫৬ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


Md.Jahangir Alam
২৯ জুন, ২০২১ ১১:১৫ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ ধন্যবাদ।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


Saheb Ali Sardar
২৯ জুন, ২০২১ ১০:৫৮ অপরাহ্ণ

শুভ কামনা ও অভিনন্দন


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


প্রবীর কুমার শীল
২৯ জুন, ২০২১ ০৭:২০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ অভিনন্দন ও শুভকামনা। আমার কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত, রেটিং ও লাইক প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


স্বপ্না রানী বিশ্বাস
২৯ জুন, ২০২১ ০৫:৩৬ অপরাহ্ণ

শুভ কামনা রইল।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মো: শরিফুল ইসলাম
২৯ জুন, ২০২১ ০৪:৩০ অপরাহ্ণ

Best wishes for you.


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোঃ মাহাবুর রহমান
২৯ জুন, ২০২১ ০২:৫০ অপরাহ্ণ

Sir, thanks a lot for uploading such a nice vedio content.


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোছাঃ জেসমিন নাহার বেগম
২৯ জুন, ২০২১ ০৯:১৭ পূর্বাহ্ণ

স্যার আমার Video Content & blog গুলো দেখার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। পূর্ণ রেটিং সহ ধন্যবাদ।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোঃ আবুল কালাম
২৮ জুন, ২০২১ ১০:০৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা। আমার কন্টেন্ট ও ব্লগ দেখার আমন্ত্রণ রইলো।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোঃ ইসমাইল হোসেন
২৮ জুন, ২০২১ ০৫:৪১ অপরাহ্ণ

সৃজনশীল মেধা ও কর্ম কুশলতাকে কাজে লাগিয়ে আপনি অসাধারন তথ্য আপলোড করেছেন ।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মো: হাদিউজ্জামান
২৮ জুন, ২০২১ ০৫:৩৫ অপরাহ্ণ

তথ্য নির্ভর লেখার জন্য শুভকামনা।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


বিশ্বনাথ মন্ডল
২৮ জুন, ২০২১ ০৫:২৮ অপরাহ্ণ

তথ্য নির্ভর লেখার জন্য শুভকামনা।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


সন্তোষ কুমার বর্মা
২৮ জুন, ২০২১ ০৫:০৪ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ ধন্যবাদ আমার কন্টেন্ট দেখার জন্য অনুরোধ করছি।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


ফারজানা পারভীন
২৮ জুন, ২০২১ ০৪:৩২ অপরাহ্ণ

চমৎকার উপস্থাপন লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


জাহিদুল ইসলাম
২৮ জুন, ২০২১ ০৩:৩৬ অপরাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম/ আদাব। লাইক রেটিং সহ আপনার জন্য রইলো শুভকামনা। শিক্ষক বাতায়নে আমার ৩২ তম আপলোডকৃত কনটেন্টটি দেখে লাইক,সুচিন্তিত মতামত ও পূর্ণ রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। কনটেন্ট লিংক: https://www.teachers.gov.bd/content/details/995451


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


লুৎফর রহমান
২৮ জুন, ২০২১ ০৩:২০ অপরাহ্ণ

Best wishes with full ratings. Sir/Mam Please visit my Batayon house.


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোহাম্মদ শাহাদৎ হোসেন
২৮ জুন, ২০২১ ০২:১৮ অপরাহ্ণ

👉 লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আবারও ধন্যবাদ।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


রোকসানা আক্তার
২৮ জুন, ২০২১ ০১:০১ অপরাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম সম্মানিত প্রেডাগোজি রেটার,এডমিন, বাতায়ন প্রেমী সহকর্মীবৃন্দ,সেরা কন্টেন্ট নির্মাতাবৃন্দ।আশা করছি সবাই খুব ভালো আছেন। লাইক,কমেন্ট ও রেটিং সহ আমি সবার পাশে আছি সবসময়। আমার বাতায়ন বাড়ি ঘুরে আসার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি এবং এই পাক্ষিকের ব্লগ, কন্টেন্ট দেখে আপনাদের মূল্যবান মতামত দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি। আমার কন্টেন্ট লিংক https://www.teachers.gov.bd/content/details/1012088 সবাই ভালো থাকুন সবসময় - এই দোয়া করি। বিনীত- রোকসানা আক্তার সহকারী শিক্ষক (জীববিজ্ঞান)


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


শেখ আব্দুল আহাদ
২৮ জুন, ২০২১ ১২:৩৩ অপরাহ্ণ

লাই্‌ক, পূর্ণ রেটিং ও সহ আপনার জন্য রইলো শুভকামনা।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


সৈয়দ আব্দুল্লাহ আলমামুন
২৮ জুন, ২০২১ ১২:২৯ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ অভিনন্দন ও শুভকামনা। আমার কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত, রেটিং ও লাইক প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মোঃ ফারুক হোসেন
২৮ জুন, ২০২১ ১২:১৪ অপরাহ্ণ

সৃজনশীল মেধা ও কর্ম কুশলতাকে কাজে লাগিয়ে আপনি অসাধারন কন্টেন্ট আপলোড করেছেন । এজন্য লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ অভিনন্দন রইল এবং আমার আপলোডকৃত কন্টেন্টে আপনার সহযোগিতা, উৎসাহ, সুদৃষ্টি এবং মূল্যাবান মতামত প্রত্যাশা করছি।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


আজিজুল হক
২৮ জুন, ২০২১ ১০:৩০ পূর্বাহ্ণ

তথ্য নির্ভর লেখার জন্য শুভকামনা।


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


মো: তরিকুল ইসলাম
২৮ জুন, ২০২১ ১০:১৮ পূর্বাহ্ণ

Best wishes for you.


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।


বিপুল সরকার
২৮ জুন, ২০২১ ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ

🕊️পরম শ্রদ্ধাস্পদেষু বাতায়ন প্রেমী, অনিন্দসুন্দর আপনার উপস্থাপন । শুভকামনা ও অভিনন্দন সহ বাতায়নে প্রবেশ করলে, আমার পাতায় স্বাগত। 💐💐


মোঃ তানভীর হোসেন
৩০ জুন, ২০২১ ১২:২৮ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ।