বাংলাদেশের লোকসংস্কৃতি এর বিভিন্ন উপদান

ঝর্না খাতুন ০৫ ফেব্রুয়ারি ,২০২২ ১৫৫ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৪.৮৬ ()

সাধারণ মানুষের ভাষা, জীবনবোধ, বিনোদন, সাহিত্য, পেশা – এ সব নিয়েই গড়ে ওঠে ‘লোকসংস্কৃতি'৷ এই সংস্কৃতির মধ্যে থাকে সহজিয়া সুর৷ কোনো কৃত্রিমতা থাকে না লোকসংস্কৃতিতে৷ এটা সহজাত, সহজিয়া আর স্বাভাবিক বহতা নদীর মতো৷ পোশাকি সংস্কৃতির বিপরীতে এক শক্তিশালী সোঁদা মাটির গন্ধ ভরা স্বকীয় সংস্কৃতি৷ এর কোনো বিনাশ নাই৷ আছে আধুনিক সাহিত্য এবং সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করার উদারতার ইতিহাস৷ তাছাড়া এই সংস্কৃতির ভাষাও লোকজ৷ যাকে বলা হয় লোকভাষা৷ সাধারণ গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর মুখে, কথায়, ভাষার ব্যবহারে, লেখায় এর প্রকাশ৷

গ্রামীণ জীবনের আনন্দ-বেদনার কাব্য, জীবনবোধের প্রকাশ৷ তাঁদের পোশাক, খাবার, প্রার্থনা, পূজা-পার্বণ, ফসল, ব্যবহার্য জিনিসপত্র, বাসস্থান, বাহন, জীবন সংগ্রাম, দ্বন্দ্ব, বিরহ – এ সবই লোকসংস্কৃতিকে রূপ দেয়৷ লোকসংস্কৃতির মাধ্যমে তার সামগ্রিক প্রকাশ ঘটে৷ লোকগানে, কবিতায়, সাহিত্যে, উৎসবে, খেলাধুলাতেও প্রকাশ পায় লোকসংস্কৃতি৷

আছে প্রবাদ-প্রবচন, খনার বচন, লোককথা৷ এরমধ্যে আছে প্রকৃতির কথা, ঋতুর কথা, ভালো-মন্দের কথা, জীবনযাপনের প্রয়োজনীয় দিকের কথা৷ এ সবের সঙ্গে আছে বিজ্ঞানের সম্পর্ক, আছে যুক্তির সম্পর্কও৷ লোকসংস্কৃতির অনেক উপাদানের রূপ-প্রকৃতির বিচার করে একে চারটি প্রধান ধারায় ভাগ করা হয়: বস্তুগত, মানসজাত, অনুষ্ঠানমূলক ও প্রদর্শনমূলক৷

গ্রামীণ জনপদের লোকসমাজ জীবনধারণের জন্য যেসব দ্রব্য ব্যবহার করে, তা বস্তুগত সংস্কৃতির উপাদান৷ যেমন বাড়ি-ঘর, দালান-কোঠা, আসবাবপত্র, তৈজসপত্র, যানবাহন, সকল পেশার যন্ত্রপাতি, কুটিরশিল্প, সৌখিন দ্রব্য, পোশাক-পরিচ্ছদ, খাদ্যদ্রব্য, ঔষধপত্র ইত্যাদি৷

মৌখিক ধারার লোকসাহিত্য মানসজাত লোকসংস্কৃতির অন্তর্ভুক্ত৷ লোককাহিনি, লোকসংগীত, লোকগাথা, লোকনাট্য, ছড়া, ধাঁধা, মন্ত্র, প্রবাদ-প্রবচন প্রভৃতি গদ্যে-পদ্যে রচিত মৌখিক ধারার সাহিত্য৷

অনুষ্ঠান ও প্রদর্শনমূলক লোকসংস্কৃতির মধ্যে লোকনাট্য, যাত্রা, নৃত্য ও খেলাধুলা প্রধান৷ বাউল, গম্ভীরা, জারি গানের সঙ্গে নাচ, সারি গানের সঙ্গে সারি নাচ, লাঠি খেলার সঙ্গে লাঠি নাচ, খেমটা গানের সঙ্গে খেমটা নাচ এবং ঘাটু গানের সঙ্গে ঘাটু নাচ ওতপ্রোতভাবে জড়িত৷ হোলির গীত, গাজীর গীত, মাগনের গীত, বিবাহের গীত, হুদমার গীত প্রভৃতি লোকসংস্কৃতির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ৷

0 seconds of 0 secondsVolume 90%
অডিও শুনুন08:53

‘বাংলাদেশে কৃষি ও শ্রমজীবী মানুষকে কেন্দ্র করেই লোকসংস্কৃতির উদ্ভব’

হস্তশিল্প লোকসংস্কৃতির এক সমৃদ্ধ ভুবন৷ এ সব হস্তশিল্পে মানুষের মেধা, নৈপুণ্য ও দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশ পায়৷ যেমন নকশিকাঁথায় পায় শিল্পী মনের প্রকাশ৷ বেতশিল্প, বাঁশশিল্প, কাঠশিল্প, চামড়াশিল্প, বুননশিল্প সমৃদ্ধ করেছে লোকসংস্কৃতিকে৷ মসলিনের যুগ পেরিয়ে আজকের জামদানি লোকশিল্পেরই অবদান৷

সাধারণভাবে প্রাকৃতিক পরিবেশে বসবাসরত ‘অক্ষরজ্ঞানহীন' ও ঐতিহ্যের অনুসারী বৃহত্তর গ্রামীণ জনগোষ্ঠীকে ‘লোক' বলে অভিহিত করা হয়৷ এই ধরনের জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রা, সমাজব্যবস্থা, বিশ্বাস-সংস্কার ও প্রথা-প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গড়ে ওঠা সংস্কৃতিতে মিল আছে৷ মার্কিন লোককলাবিদ স্টিথ থমসন এই লোক-মানসিকতার অভিন্ন গতি-প্রকৃতি দেখিয়েছেন তাঁর গবেষণায়৷ বাংলার কৃষক ফসল তোলার সময় এক গোছা ধান মাঠ থেকে এনে ঘরের চালে ঝুলিয়ে রাখেন৷ একে বলা হয় ‘লক্ষ্মীর ছড়া'৷ বিশ্বের নানা দেশের কৃষকসমাজেও একই প্রথা চালু আছে৷ কোথাও তা ‘শস্যরানি', কোথাও ‘শস্যপুতুল', কোথাও বা ‘শস্যমাতা' নামে অভিহিত৷ তাই লোকসংস্কৃতির একটা বিশ্বজনীন ও সর্বকালীন রূপ আছে৷

লোকসংস্কৃতির গবেষক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. রহমান হাবিব মনে করেন, ‘‘সাধারণের জীবন ধর্মই হলো লোকসংস্কৃতি৷ আর বাংলাদেশে কৃষি ও শ্রমজীবী মানুষকে কেন্দ্র করেই লোকসংস্কৃতির উদ্ভব৷ গ্রামীণ জীবনের একটি যাত্রাপালা সহজ এবং সাধারণ জীবনের সঙ্গে সম্পৃক্ত৷ এটারই পোশাকি রূপ হলো নাটক৷ তাই সহজেই বলা যায় আধুনিক সংস্কৃতি তথা সাহিত্যের ভিত্তিই হলো লোকসংস্কৃতি বা লোকসাহিত্য৷''

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মন্তোষ ভৌমিক
০৬ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ০৩:১০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


সন্তোষ কুমার বর্মা
০৬ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ১২:২৫ অপরাহ্ণ

সুন্দর কনটেন্ট উপস্থাপনের জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ আমার কনটেন্ট দেখার জন্য অনুরোধ করছি।


মোঃ মানিক মিয়া
০৬ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ণ

সুপ্রিয় শিক্ষক মহোদয় আসসালামু আলাইকুম।আশা করি প্রত্যেকে আল্লাহর রহমতে ভাল আছেন ও ভাল থাকবেন। তবে জীবন ঘাতি ভাইরাস ওমিক্রন বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশের আবারো ক্লান্তিকাল চলছে। আমাদের প্রিয় কর্মস্থল শিক্ষার্থীদের অনুপস্থিতিতে স্থবির।এমন্তাবস্থায় মনস্তাত্ত্বিক দিককে বিকশিত করার অভিপ্রায়ে শিক্ষক বাতায়নে আমার ৪৯ তম প্রেজেন্টেশন কন্টেন্ট "মেরুদন্ডী প্রাণী" ইতোমধ্যে আপলোড করেছি। যা আপনাদের অংশগ্রহণ ও পর্যবেক্ষণ প্রত্যাশা করে লাইক,রেটিং ও সুচিন্তিত গঠনমূলক মতামত আশা করি।ধন্যবাদ। https://www.teachers.gov.bd/content/details/1207141


তাপস চন্দ্র সূত্রধর
০৫ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ১০:৫৪ অপরাহ্ণ

👍👍👍আপনি শ্রেণি উপযোগী ও মানসম্মত কন্টেন্ট আপলোড করে প্রিয় শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করায় লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইল। চলতি পাক্ষিকে আমার আপলোডকৃত ৬৪তম কন্টেন্ট দেখে আপনার সুচিন্তিত মতামত আশা করছি।ধন্যবাদ। https://www.teachers.gov.bd/content/details/1207095


সত্যজিৎ গোস্বামী
০৫ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ০৬:৫৯ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। সেই সাথে আমার কন্টেন্ট দেখে সুচিন্তিত মতামত প্রদানের বিনীত অনুরোধ রইলো। স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন ,নিরাপদ থাকুন।


কোহিনুর খানম
০৫ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ০৫:৩৩ অপরাহ্ণ

চমৎকার উপস্থাপনা। আপনার জন্য শুভ কামনা। আপনার সুচিন্তিত মতামত ও রেটিং আশা করছি।যা আমার ভবিষৎ কার্যক্রমকে সুদৃঢ় করবে।লিংক-https://www.teachers.gov.bd/content/details/1209080


জিল্লুর হোসাইন
০৫ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ০৫:২৯ অপরাহ্ণ

আপনি শ্রেণি উপযোগী ও মানসম্মত কন্টেন্ট আপলোড করে প্রিয় শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করায় লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইল। আমার কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত , রেটিং ও লাইক প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


লুৎফর রহমান
০৫ ফেব্রুয়ারি , ২০২২ ০৫:২১ অপরাহ্ণ

Best wishes with full ratings. Sir/Mam. Please give your like, comments and ratings to watch my PowerPoint, blog, image, video and publication of this fortnight. Link: PowerPoint: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1207453 Blog: https://www.teachers.gov.bd/blog-details/635317 Video: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1202420 Video 2: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1204019 Publication: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1203164 Batayon ID: https://www.teachers.gov.bd/profile/Lutfor%20Rahman