এই দিনে

ওয়ারশ চুক্তি

ওয়ারশ চুক্তি (বন্ধুত্ব, সহযোগীতা এবং পারস্পরিক সহায়তার চুক্তি হিসেবে পরিচিত, সংক্ষেপে ওয়ারপ্যাক, ন্যাটোর গঠনের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ]]) ছিল স্নায়ুযুদ্ধ চলাকালীন কেন্দ্রীয় ও পূর্ব ইউরোপের আটটি সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র নিয়ে গঠিত সম্মিলিত প্রতিরক্ষা চুক্তি। ওয়ারশ চুক্তি কাউন্সিল ফর মিউচুয়াল ইকোনোমিক অ্যাসিসটেন্স (কমিকন)-এর সাথে সামরিক দিক দিয়ে সম্পূরক ছিল। কমিকন কেন্দ্রীয় ও পূর্ব ইউরোপের সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্রের আঞ্চলিক অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান ছিল। ওয়ারশ চুক্তি মূলত ১৯৫৪ সালের প্যারিস চুক্তির[২][৩][৪] ভিত্তিতে ১৯৫৫ সালে ন্যাটোর সাথে পশ্চিম বাহিনীর একত্রীকরণের পরিপ্রেক্ষিতে সোভিয়েত সামরিক বাহিনীর প্রতিক্রিয়া ছিল। প্রাথমিকভাবে কেন্দ্রীয় ও পূর্ব ইউরোপের সামরিক বাহিনী সোভিয়েতের ইচ্ছা কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত হত। পর্যায়ক্রমে, (ওয়ারশ চুক্তির প্রস্তাবনা অনুযায়ী) জাতিসংঘের সনদ নীতিমালা অনুযায়ী ইউরোপে শান্তি বজায় রাখাই এই চুক্তির উদ্দেশ্য হয়ে পড়ে (১৯৪৫)। ইউএসএসআর-এর পতন এবং স্নায়ুযুদ্ধের সমাপ্তির পরে, এই মৈত্রী একটি সম্মিলিত নিরাপত্তাজনিত চুক্তিভিত্তিক সংস্থা বা সিএসটিওতে পরিণত হয়। ১৯৯১ সালের ৩১শে মার্চ ওয়ারশ চুক্তিকে বিলুপ্ত বলে ঘোষণা করা হয়।