শ্রদ্ধা-ভক্তির এ কাল-সেকাল

মোঃ আমির হোসেন ১৭ অক্টোবর,২০১৯ ১৩২ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()

                          শ্রদ্ধা-ভক্তির এ কাল-সেকাল

আজ থেকে প্রায় ৪০ বছর পূর্বে যখন ছাত্র ছিলাম,তখন ছিল শ্রদ্ধা-ভক্তির সোনালী যুগ ।সকল স্তরে বডদের সালাম, শ্রদ্ধা-ভক্তি করাই যেন একটা রেওয়াজ।আর  তা রপ্ত করাই ছিল একজন শিক্ষার্থীর দৈনন্দিন রুটিনের একটি অংশ

সেকালের রূপচিত্রঃ- (১) বড়দের দেখলে সালাম দেওয়া সম্মান করা।

                       (২)গুরুজন ,শিক্ষক, পরম পূজনীয় ব্যক্তিদের পা ধরে সালাম করা।

                       (৩)বয়োবৃদ্ধ / পিতা মাতা/ অসহায়দের কাজে সহায়তা করা।

                       (৪)বাবা মার সাধ্যানুয়াজী যা দিতে পারে তা নিয়ে সন্তুষ্ট থাকা।

                      (৫)মিথ্যা না বলা সত্যকে প্রতিষ্ঠা করা।

                      (৬) শিক্ষা গ্রহণ করে পিতা মাতার আকাংখা পূরণ করা।

                      (৭) চুরি ও মিথ্যাকে পাপ হিসাবে দেখা ।

                     (৮) চাল চলন ও রুচি বোধ উন্নয়ন করা।

এ কালের রুপ চিত্রঃ

                   (১) বয়োবৃদ্ধ / পিতা মাতা/ অসহায়দের সম্মানের পরিবর্তে উপহাস করা।

                   (২) আদেশ নিষেদ অমান্য করাকে কৃতিত্ব মনে করা ।

                  (৩) গুরুজন ,শিক্ষক, পরম পূজনীয় ব্যক্তিদের আদেশকে অবজ্ঞা করা।

                  (৪) মূল কাজ লিখা পড়া ছেড়ে দিয়ে অন্য কাজে যুক্ত হওয়া।

                  (৫) চাল চলন ও রুচিবধের অবক্ষয় ঘটিয়ে নিজকে আধুনিক মনে করা।

                  (৬) নিজকে বড় মনে করা,মিথ্যাকে প্রতিষ্ঠিত করা, যুক্তির মাধ্যমে নিজেকে জাহির করা।

                                                                                                                                                           মোঃ আমির হোসেন

                                                                                                                                                             প্রধান শিক্ষক

                                                                                                                                              পাল্লা মাহবুব আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়

                                                                                                                                                    চাটখিল-নোয়াখালী।





মতামত দিন