আঘাত হেনেছে ‘বুলবুল’, দুবলার চরে ১১৫ কিমি বেগে

মুহাম্মদ লুৎফর রহমান ০৯ নভেম্বর,২০১৯ ১৭৩ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িষ্যা-অন্ধ্র ঘেঁষে সাগরদ্বীপ এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়ার দিকে বাঁক নিয়েছে অতি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। সেই সঙ্গে তার আকার এবং গতিও ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

সর্বশেষ তথ্য মতে জানা গেছে শনিবার (৯ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে সুন্দরবনের দুবলার চর এলাকায় বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার। পরবর্তীতে তা সন্ধ্যা নাগাদ বেড়ে ঘন্টায় ১১৫ কিমি বেগে বাংলাদেশের দুবলার চর এলাকায় আঘাত হেনেছে। দুবলার চর ফিশার মেন গ্রুপের হিসাব রক্ষক ফরিদ আহমেদ জানান, ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর দুপুরে সিডর এভাবেই প্রথমে আঘাত হানে এবং বিকাল থেকে তা প্রায় ২০০ কিলোমিটার গতিবেগে দুবলার চরের জেলে পল্লীগুলো তছনছ করে দেয়।

আঞ্চলিক ঝড়ের ক্ষেত্রে বাতাসের গতিবেগ যখন ঘন্টায় ১১০-১১৭ কি.মি.-এর বেশি হয় সে ঝড়কে উপমহাদেশীয় অঞ্চলে সাইক্লোন নাম দেয়া হয়। আটলান্টিক মহাসাগরীয় অঞ্চলে এ ঝড়কে 'হারিকেন' এবং প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় 'টাইফুন' বলা হয়। তবে এর গতিবেগ ১২০-১২৫ কিমি হলে সেটিকে সুপার সাইক্লোন হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়।

আবহাওয়া বিজ্ঞানীদের মতে, শনিবার (৯ নভেম্বর) রাতেই তা আঘাত হানবে স্থলভাগে। আশঙ্কা বাড়ছে,বুলুবুল কোথায় গিয়ে আছড়ে পড়বে তা নিয়ে। আজ রাতে কি তবে সাগরদ্বীপে ছোবল মারতে চলেছে বুলুবুল? না কি আরও সরে গিয়ে আছড়াবে খেপুপাড়ার কাছে? এখনও নিশ্চিত ভাবে কিছু বলছেন না আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা। সাগরদ্বীপ থেকে খেপুপাড়ার মধ্যে তার বিস্তার থাকলেও দিল্লির মৌসম ভবন কিন্তু জানাচ্ছে, বুলবুল আঘাত হানার সম্ভাবনা রয়েছে এ রাজ্যের সুন্দরবন এলাকায়।   

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, সমুদ্রে বুলবুলের গতিবেগ বেশি থাকলেও, স্থলভাগে আছড়ে পড়ার সময় তার গতি কমবে। কিন্তু যে ভাবে শক্তিশালী হয়ে উঠেছে বুলবুল, তাতে মনে করা হয়েছে স্থলভাগে আছড়ে পড়লেও, গতি হবে ঘণ্টায় ১১০ থেকে ১২০ কিলোমিটার। শেষ মুহূর্তে যদি শক্তি বৃদ্ধি পায়, তা হলে এটি ১৩৫ থেকে ১৫০ কিলোমিটার গতিতেও পৌঁছে যেতে পারে।

মতামত দিন