গল্প নয়, আমার সফলতার বাস্তব গল্প

আবদুল ছফুর ১৯ মে,২০২০ ৯১ বার দেখা হয়েছে লাইক ১৬ কমেন্ট ৪.৬৭ ()

ছোট বেলা থেকেই শিক্ষক হওয়ার জন্য একটা  ইচ্ছে পোষণ করতাম। সে ইচ্ছে বাস্তবে পূরণ হয়েছে বান্দরবান সদরে অবস্থিত আল-ফারুক ইনস্টিটিউট -এ শিক্ষক হিসেবে যোগ দানের মাধ্যমে। উক্ত প্রতিষ্ঠানে আমি ব্যবসায় শিক্ষার শিক্ষক হিসেবে যোগদান করি। 

সদ্য ম্যানেজমেন্টে (অনার্স) পাস করে আমার শিক্ষকতা জীবন  শুরু। তৎকালীন প্রয়াত প্রধান শিক্ষক বাহার উদ্দিন স্যার ছিলেন আমার প্রেরণার উৎস। তিনি অত্যন্ত ভালো মানুষ ছিলেন। উক্ত প্রতিষ্ঠানে চাকুরিরত অবস্থায় আমি বিএডএমকম ডিগ্রি অর্জন করি। পরবর্তীতে ৪র্থ নিবন্ধন পরীক্ষায়  অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের সাথে নিবন্ধন পাসকরি।

আল্লাহর রহমতে আমার ভাগ্যটা এমন যে আমাকে নিবন্ধন পাস করে  বেশি দিন বসে থাকতে হয়নি। মাত্র তিন মাসের মাথায় বান্দরবান সদরে অবস্থিত বালাঘাটা বিলকিছ বেগম উচ্চ বিদ্যালয় (Mpo ভুক্ত) -এ ব্যবসায় শিক্ষার শিক্ষক হিসেবে ০২/১১/২০১৯ যোগদান করি। 

অনলাইন সম্পর্কে তেমন কিছুই জানা ছিলনা। তবে ২০১১ সালে গ্রামের এক ভাতিজার সহযোগিতায় ফেসবুকের একাউন্ট করেছিলাম। এ থেকে একটু একটু অনলাইনের সাথে পরিচয় হওয়া। 

২০১৩ সালের দিকে আমাদের বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জনাব শম্পা সেন আইসিটির ওপর ১৪ দিনের ট্রেনিং নিয়ে

চট্টগ্রাম টিচার্স ট্রেনিং কলেজ থেকে এসেছে। পরবর্তীতে ওনার মাধ্যমে বিদ্যালয় সরকারের কাছ থেকে একটি ল্যাপটপ ও একটি প্রজেক্টর পায়। 

মনে হলো, আইসিটি সেতো বিশাল ব্যাপার! এসবতো ধরা ছুঁয়ার বাইরে। মানুষের শরীরে কি যেন ভাইরাস আছে, সেটি নাকি এ ল্যাপটপেও আছে। তাই এটাকে বেশী ধরা ছুঁয়া যাবেনা। 

কোন একদিন শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে একটা টিম আসল মাল্টিমিডিয়া ক্লাস  দেখবে। মাল্টিমিডিয়া ক্লাস সেটা আবার কী! আমার আগ্রহের কোন কমতি ছিলনা তাই আজ মাল্টিমিডিয়া  ম্যাডামের পিছু ছাড়িনি।

 যথারীতি  ক্লাস শুরু  হলো ম্যাডামের তৈরি করা  একটি প্রেজেন্টেশন ক্লাসে দেখালেন। লাপিয়ে লাপিয়ে,নেচে নেচে  কি সুন্দর একটি ক্লাস! ঠিক যেন টকি সিনেমার মতো। 

ক্লাস শেষে ম্যাডামের  পাশে ল্যাপটপটা ছুঁয়ে জিজ্ঞেস করলাম এটা কিভাবে তৈরি করেছেন? 


 ম্যাডাম হাসি মুখে আমাকে বললেন এটি তৈরি এবং দেখানো অত্যন্ত সহজ। সে দিন ল্যাপটপের দু'একটা বাটন সম্পর্কে সবে মাত্র পরিচিত হলাম। বিদ্যালয়ের অফিস

রুমে  মাঝে মধ্যে প্রধান শিক্ষকের অনুমতি নিয়ে একটু একটু ল্যাপটপ চালানোর সুযোগ পেতাম তবে তা পর্যাপ্ত নয়। মাস ছয়-এক পর এবার আমি ভাবলাম নিজে একটি ল্যাপটপ কিনে নিব। কিন্তু এত টাকা পাবো কোথায়।


ল্যাপটপ বিক্রয় করে এমন, পরিচিত বান্দরবান  বাজারে Dream Tech নামে একটি মোবাইলের দোকান ছিল, অবশ্য এখনো আছে। দোকান মালিককে সব খুলে বললাম তিনি আমাকে ৪২ হাজার টাকা দামের একটি  Asus ল্যাপটপ কিস্তিতে বিক্রয় করলেন। 

কিন্তু ব্যবহার বিধি নাজানার কারণে ১১ মাসের মাথায় ল্যাপটপটি নষ্ট হয়ে গেল। আবশ্য কিস্তির টাকা তখনো সম্পুর্ন পরিশোধ করতে পারিনি। স্থানীয় এক ম্যাকানিককে দেখালে সে আমার ৩৫০০ টাকা সহ পুরো ল্যাপটপটা ডেমেজ করে দিল। তখন আমার একটা ছোট্ট ভুল ছিল,আমি Dream Tech- না গিয়ে ল্যাপটপ ম্যাকানিককে দেখিয়েছিলাম। পরি শেষে ল্যাপটপের হার্ডডিস্কটা রেখে বাকি সব ৪ হাজার টাকা

দিয়ে বিক্রি করে দিলাম। এরপর আইসিটি শেখা অনেকাংশ ক্ষীণ হয়ে গেল। ল্যাপটপ ছাড়া আরও  এক বছর থাকতে

হলো। মাঝে মধ্যে স্কুলের ল্যাপটপটা দেখার সুযোগ হতো। এরি মাঝে facebook- এ পরিচয় হলো Birampur 

Paurashabha High schools -এর সম্মানিত শিক্ষক Md.Shahin Ferdoush স্যারের সাথে। স্যারের facebook স্ট্যাটাসে শিক্ষক বাতায়নের পোষ্ট দেখে শিক্ষক বাতায়ন সম্পর্কে জানতে চাইলাম। 

স্যার আমাকে বিস্তারিত বলে Email ID পাঠাতে বললেন। পরবর্তীতে আমন্ত্রণ পাঠানোর পর আমি শিক্ষক বাতায়নের সদস্য হলাম। ২০১৫ সালে আবার নতুন ল্যাপটপ কিনে নিজে নিজে কাজ শিখে ২০১৬ সাল হতে শিক্ষক বাতায়নপরবর্তীতে মুক্তপাঠে কাজ করতে শুরু কলাম। আইসিটি বিষয়ে আমার কোন ট্রেনিং ছিলনা। যা শিখেছি তা সবই মুক্তপাঠের অবদানে। 

মুক্তপাঠই আমার ট্রেনিং সেন্টার। বর্তমানের মুক্তপাঠে ৬১ টি কোর্সে অংশগ্রহণ করে ৪৪ টি সমাপ্ত করেছি।পয়েন্ট ৪,৩০,৮০০শিক্ষক বাতায়নে রয়েছে ২৪ টি কন্টেন্ট, ১০ টি ছবি ও ৪ টি ভিডিও। মুক্তপাঠ এবং শিক্ষক বাতায়ন থেকে সবচেয়ে বড় অর্জন হলো A2i কর্তৃক ICT4E district Ambassador হিসেবে স্বকৃীত পাওয়া।

 আমি আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব শত সীমাবদ্ধতার মাঝেও পালন করার চেষ্টা করছি। ICT4E হিসেবে মনোনীত হওয়ার পর  বান্দরবান জেলা শিক্ষা অফিসার  সুমা রানী বড়ুয়ার নির্দেশনায় আমি আর আবদু রহিম স্যার ২০১৮ সালের জুনের দিকে প্রায় ৫০ জন শিক্ষক নিয়ে দুর্গম পাহাড়ি এলাকা থানচি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসকে  আরো সমৃদ্ধ করার জন্য একটি  কর্মাশালার আয়োজন করা হয়।

 এটা ছিল আমার জীবনের শিক্ষকদের নিয়ে প্রথম কর্মশালা। দিনব্যাপি উক্ত কর্মশালায় আইসিটির প্রতি উপস্থিত শিক্ষকদের প্রচন্ড আগ্রহ দেখে নিজেকে আইসিটির উপর সুদৃঢ় করতে আরো প্রেরণা পাই। 

মাল্টিমিডিয়া ক্লাস একটি অত্যন্ত কার্যকরী ক্লাস। নিজ বিদ্যালয়ে দৈনিক দু'একটা মাল্টিমিডিয়া ক্লাস না নিলে মনে হয়  ক্লাসের পরিপূর্ণতা পাইনি। শিক্ষার্থীদেরও মাল্টিমিডিয়া ক্লাসের প্রতি আগ্রহটা বেশি। তাই আমি নিয়মিত মাল্টিমিডিয়া ক্লাস নিয়। দুবছর আগে হঠাৎ বিদ্যালয়ের ল্যাপটপটা নষ্ট হয়ে গেল। নিজের  ল্যাপটপ দিয়ে বেশ কিছুদিন ক্লাস চালানোর পর নিজেরটাও নষ্ট হয়ে গেল। ৭৫০০ টাকা দিয়ে নিজেরটা ঠিক কলাম। অবশ্যই এরি মাঝে প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটিকে বলে বিদ্যালয়ের জন্য আর একটি নতুন ল্যাপ্টপ ক্রয় করলাম। উল্লেখ্য যে বিদ্যালয়ের আগের ল্যাপটপটা অনেক দিনের পুরনো হওয়ার কারণে সম্পুর্ন ডেমেজ হয়ে গেল। 

গত বছর সেই ল্যাপটপের সাথে পাওয়া প্রজেক্টেরটাও নষ্ট হয়ে গেল। মেরামত করার জন্য বার বার চেষ্টা চালিয়েও বিভিন্ন সমস্যার কারণে তা আর ঠিক করা হলোনা। কিন্তু আমাকেতো ক্লাস নিতেই হবে। 

কারণ মাল্টিমিডিয়া ক্লাস ছাডা আমার ক্লাস অপুর্ণ মনে হয়। তাই নিজের অর্থায়নে একটি মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টের কিনে নিলাম । এখন বলতে গেলে একটি মাল্টিমিডিয়া ক্লাস চালানোর জন্য যা যা প্রয়োজন সবই নিজের অর্থায়নে, এমনকি এ পর্যন্ত মোবাইল ডাটাও। যে যাই বলুকনা কেন এ কাজে আমি অনেক আনন্দ পাই। এটার জন্য আমি কারো কাছে কখনো জোড়ালো  অভিযোগ ও করিনি। শিক্ষকতা জীবনে কিছু অর্থের বিনিময়ে আমার প্রাপ্তিটা অনেক বেশি। এ পেশায় নিয়োজিত হয়ে হাজার হাজার গুনি মানুষের সান্নিধ্যে পেয়েছি। শিখেছি,জেনেছি অনেক কিছু। আলহামদুলিল্লাহ 

গত বছর BTT ট্রেনিংটা পেয়েছি। পরবর্তীতে In-house ট্রেনিংয়ের জন্য ট্রেনার হিসেবে নিযুক্ত হলে অর্পিত কাজ যথাযথ ভাবে পালন করেছি। বর্তমান, আমাদের বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি থেকে আশা বাণী পেলাম ২০২১ সালের মধ্যে প্রত্যেকটা ক্লাসরুম মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম হবে। ইনশাআল্লাহ পরিপুর্ণ আশা রাখি । এখন শুধু  একটাই আশা শিক্ষক বাতায়নে নিজেকে একবার সেরা শিক্ষকদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা। 

আল্লাহ সহায় হলে তাও একদিন পূরণ হবে। শিক্ষকতা জীবনে ১৩ বছর ৩ মাস পার করলাম। এর মধ্যে MPO ভুক্ত স্কুলে ১০ বছর ৫ মাস। এ পেশাকে অত্যন্ত আপন করে নিয়েছি। শিক্ষার্থীরা আমার প্রান।

 করোনা পরিস্থিতিতির কারণে অনেক দিন ধরে তাদের সাথে অমার দেখা নাই। ইনশাআল্লাহ পরিস্থিতিতি স্বাভাবিক হলে নতুন উদ্যোমে শিক্ষার্থীদের সামনে হাজির হবো এবং নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে তাদের খেদমতে বাকি সময়টুকু লেগে থাকবো। আমি সবার কাছে দোয়া প্রার্থী।  

 

  আবদুল ছফুর 

 সহকারী শিক্ষক ( ব্যাবসায় শিক্ষা)

 বালাঘাটা বিলকিছ বেগম উচ্চ বিদ্যালয় 

 বান্দরবান সদর, বান্দরবান। 


মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ গোলাম ওয়ারেছ
২০ মে, ২০২০ ১১:৪৮ পূর্বাহ্ণ

আপনাকে অভিনন্দন। লাইক, কমেন্ট ও পূর্ণ রেটিং সাথে অসংখ্য শুভ কামনা রইল। আপনার দীর্ঘায়ু ও সাফল্য কামনা করছি। সেই সাথে আমার পাক্ষিক ৩১ নং কন্টেন্ট ভার্চুয়্যাল রিয়েলিটি দেখে সুচিন্তিত মতামত, লাইক ও রেটিং প্রদানের অনুরোধ রইল।


আবদুল ছফুর
২৯ মে, ২০২০ ০৯:৫০ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


সুজিত দেব
২০ মে, ২০২০ ০৯:৫০ পূর্বাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং ও লাইকসহ শুভকামনা ও অভিনন্দন। আমার কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন।


আবদুল ছফুর
২৯ মে, ২০২০ ০৯:৫১ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


মেফতাহুন নাহার
২০ মে, ২০২০ ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

শুভেচ্ছা -অভিনন্দন ও শুভকামনা। আমার কনটেন্টগুলো দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


আবদুল ছফুর
২৯ মে, ২০২০ ০৯:৫১ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


মোঃ কামরুজ্জামান ভূঁইয়া
১৯ মে, ২০২০ ০৫:৫১ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা । ঘরে থাকুন, ভাল থাকুন,পরিবারের সাথে থাকুন । আমার কনটেন্ট গুলো দেখে লাইক কমেন্ট এবং রেটিংসহ মুল্যবান মতামত প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


আবদুল ছফুর
২৯ মে, ২০২০ ০৯:৫১ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


মোঃ শফিকুল ইসলাম
১৯ মে, ২০২০ ০১:০৩ অপরাহ্ণ

রেটিং সহ শুভকামনা। আমার ৪৭তম কনটেন্ট দেখার অনুরোধ রইল।


আবদুল ছফুর
১৯ মে, ২০২০ ০৭:৩৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


মো: নজরুল ইসলাম
১৯ মে, ২০২০ ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ শুভ কামনা রইলো। আমার এ সপ্তাহের আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার লাইক ও রেটিংসহ মতামত প্রত্যাশা করছি।


আবদুল ছফুর
১৯ মে, ২০২০ ০৭:৩৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


MOHAMMAD DAUD
১৯ মে, ২০২০ ১০:০৩ পূর্বাহ্ণ

রেটিং সহ ধন্যবাদ ।


আবদুল ছফুর
১৯ মে, ২০২০ ০৭:৩৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার।


তাছলিমা আক্তার
১৯ মে, ২০২০ ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ণ

আবদুল ছফুর স্যার , আসসালামু আলাইকুম । লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন । ভালো থাকুন , সুস্থ থাকুন , নিজেকে নিরাপদে রাখুন । আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে লাইক ও রেটিংসহ মূল্যবান মতামত প্রদানের অনুরোধ রইল ।


আবদুল ছফুর
১৯ মে, ২০২০ ০৭:৩৯ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার