আল কোরান কোন বিজ্ঞান বই নয়, মোহাম্মদ খোরশেদ আলম, প্রভাষক, কুমিরা্ আবাসিক বালিকা স্কুল এন্ড কলেজ, কুমিরা, সীতাকুন্ড, চট্টগ্রাম।

মোঃ খোরশেদ আলম ০৯ সেপ্টেম্বর,২০২০ ৭২ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ ()

আল কোরান কোন বিজ্ঞান বই নয়
=====================
নবীন- প্রবীণ সাহিত্য মঞ্চের কোন এক কবির একটা পোষ্ট আমার অনেক ভালো লেগেছে।পোষ্টটিতে লিখা ছিল ‘‘ যদি আপনি মনে করেন আপনার লেখায় কারো উপকার হতে পারে, তাহলে আপনি লিখুন’’। আমার মনে হচ্ছে এ লেখাটি একটি উচ্চ চিন্তাশীল দল, যারা না চাইলেও তাদের মনে অনেক প্রশ্ন চলে আসে, কিন্তু পরিবেশিক চলমান ধারার রোষানলে পড়ার ভয়ে মাথার প্রশ্নকে মাথায় হত্যা করে, মুখে আসতে দেয় না। যা অনেকটা গ্রাম্য ভাষায় ‘‘কোলের পোয়া কোলে মারি ফেলার মত’’।মুলে বক্তব্যে যাওয়ার পুর্বে নিজের পিঠ বাচাঁনোর ব্যবস্থা হিসাবে একটু বলতে হয়, ম্যাথিও আরনল্ড বলেছিলেন, আপনি যা ভালো করে জানেন না তা নিয়ে লিখার অবতারনা করা হলো চারলেটানিজম।আমি অন্য ধর্ম সম্পর্কে মোটেই জানি না। ইসলাম সম্বন্ধে অল্প বিস্তর জানি অর্থাৎ যতটুকু দিয়ে একজন মুসলিম তার প্রাত্যহিক ধর্মীয় নির্দেশনাগুলো পালন করতে পারে ততটুকু।তাই আমার কথায় যদি চারলেটানিজম হয়ে যায়, ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার জন্য অনুরোধ রহিল। ইউটিউবের বদৌলতে অন্যান্য সকল বিষয়ের মতো ধর্মীয় বিষয়গুলো মানুষের জন্য অনেক বেশি সহজলভ্য হয়ে গেছে। এর ফলে ধর্মীয় জ্ঞান অর্জন যেমন সহজ হয়েছে তেমনি ধর্মের অনেক বিষয় নিয়ে মানুষের মনে বিভিন্ন প্রশ্ন দেখা দেয়ার ও আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।অন্তত যে সকল মানুষ কিছুটা চিন্তা করেন, যুক্তি নির্ভর, তাদের মনে বিভিন্ন বর্ননা বিবৃতি শুনার পর কিছু প্রশ্ন জাগা একেবারেই স্বাভাবিক। তখন তারা সবাই যে এগুলোর সমাধান খোজাঁর জন্য বিভিন্ন বই পত্র কিংবা ইউটিউব চ্যানেল দেখবেন এমনটা নয়। তারা মনের মধ্যে প্রশ্নটা ও রেখে দেয় আবার ধর্মীয় অনুশাসন গুলোও চালিয়ে যায়, যা অনেকটা আংগুলের ফাঁকে ছোট ছোট মুর্তি রেখে সালাত আদায় করার মতো। এধরনের সমস্যায় যারা আছেন তাদের জন্য এ লেখা হয়ত কিছুটা সাহায্য করবে।এ জাতীয় চিন্তা আমার মাথায় আসে ডারউইনের বির্বতনবাদ দেখে। আমি প্রফেসর ড: রানা দাজানি, ড: ওয়াসি এবং মি: সব্বুর এর কিছু ক্লাস দেখলাম ।এর মধ্যে ড: রানা দাজানি জর্দান হেমসটেক ইউনিভার্সিটির শিক্ষক । তিনি আবার একজন বিজ্ঞানি। তিনি জর্দানের বিভিন্ন এথনিক পিপলদের জেনেটিক্স নিয়ে গবেষনা করে নতুন তথ্য আবিস্কার করেছেন। যার ফল স্বরুপ তাকে ফ্রন্স এর আল আখাইন ইউনিভার্সিটি ও ক্যাম্ব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে বক্তব্য প্রদানের জন্য আমন্ত্রন করা হয়। ড: ওয়াসির বলেছেন এ যাবৎ ইসলাম যত গুলো চ্যালেন্জর মুখোমুখি হয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে বড় চ্যালেন্জ ইসলামকে ছুড়ে দিয়েছে বিবর্তনবাদ।ডা: জাকির নায়েক এ সংক্রান্ত একটা ভিডিওতে বিবর্তনবাদকে শুধু মাত্র থিওরি হিসাবে আখ্যায়িত করেছেন। কিন্তু ড: রানা দাজানিকে যখন ক্যমব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে জিজ্ঞেস করা হয় বিবর্তনবাদ থিওরি নাকি ফ্যাক্ট তিনি বলেছেন এটা ফ্যাক্ট । তিনি যুক্তি ও প্রমাণ প্রদর্শনও করেন। কিন্তু তিনি এ কথা বলেন যে বিবর্তনবাদের সাথে ইসলামের কোন দ্বন্ধ নেই।ইসলামে থেকে আপনি বিবর্তনবাদ মানতে পারবেন। তিনি বলেন বিজ্ঞান পরিবর্তনশীল। অনেক কথা বিজ্ঞান আগে বলেছিল কিন্তু আবার সেখান থেকে ফিরে এসেছে। তিনি বলেন বিবর্তনবাদ ও ইসলাম কমপ্যাটিবল। অর্থাৎ দুটোই একসাথে চলতে পারে। তখন তাকে জিজ্ঞেস করা হয়, তাহলে আদম কে। এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন আমাদের বিজ্ঞান এখনো হয়তো অতটুকু আসতে পারেনি। আমরা মানুষেরা খুব কম দিন বাঁচি। আগামিতে বিজ্ঞানের অগ্রগতি ইসলামের অনেক গুলো বিষয়ের মতো এ বিষয়ে ও একমত হবেনা এমন কেউ হলপ করে বলেতে পারবে না।কোরানে আমরা সকল বিষয়ের বিস্তারিত ব্যাখ্যা খুঁজলে হবেনা । থিউরি খুঁজলে পাওয়া যাবেনা। এখানে শুধুমাত্র রেফারেন্স আছে। কোরান হলো আমি আপনি একজন মুসলিম হিসাবে কিভাবে জীবন যাপন করবেন তার একটা ক্যাটালগ যেমন একটা ইলেকট্রনিক ইক্যুইপম্যান্টের থাকে।পানি থেকে জীবনের উৎপত্তি এর ইংগিত কোরানে আছে বলে তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।সুতরাং বিবর্তনবাদ বিশ্বাস করলে ইসলাম থাকবেনা এমনটা ভাবার কোন কারন নেই। তিনি বিজ্ঞানকে মুসলমানদের ধারন করতে বলেছেন । তিনি ইসলামের স্বর্ণযুগের উদাহরন ও দিয়েছেন যখন ইউরোপিয়ানরা বিজ্ঞান পড়ার জন্য মুসলিম ইউনিভার্সিটি অভিমুখে যাত্রা করতেন। বর্তমান বিবর্তনবাদ ও ইসলামের মধ্যে দুরত্ব সৃষ্টির মুলে উপনিবেশবাদেরই একটা চক্রান্ত বলে মনে করেন।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মীর্জা মোঃ মাহফুজুল ইসলাম
১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ণ

Best,of,luck,Visit,my,page.আমার কনটেন্ট লিংক- https://www.teachers.gov.bd/content/details/678323


ইকরামুল হক
০৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১০:৩৪ অপরাহ্ণ

Thanks.


রফরফের নুর সিদ্দিকা
০৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৯:০০ অপরাহ্ণ

আপনার আপলোডকৃত কনটেন্টের জন্য নিঃসন্দেহে পূর্ণ রেটিং ও লাইক দিলাম।আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার সুচিন্তিত মতামত, লাইক ও পূর্ণ রেটিং প্রদানের বিনীত অনুরোধ রইল।


মোঃ শফিকুল ইসলাম
০৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৭:০১ অপরাহ্ণ

রেটিংসহ শুভকামনা। আমার কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।