ইসবগুলের ভুষির যে ৮টি উপকারিতা অনেকেরই জানা নেই!

শারমিন ইসলাম ০২ জুলাই,২০২১ ৪০ বার দেখা হয়েছে ১৩ লাইক ১৪ কমেন্ট ৪.৬৮ (১৯ )

 

 

ইসবগুল বা psyllium husk বাংলাদেশ, ভারত সহ অনেক দেশেই এটি বেশ পরিচিত।এটি আভ্যন্তরীণ পাচন তন্ত্রের সমস্যার ঘরোয়া চিকিৎসা ও প্রতিকারের জন্য বেশ উপকারী।তবে এই সাদা ভুষিটির উপকারিতা শুধুমাত্র হজমতন্ত্রের মাঝেই সীমিত নয়। এর অনেক ধরনের উপকারিতা রয়েছে। চলুন তাহলে একে একে জেনে নিই ইসবগুলের উপকারিতা-

কোষ্ঠকাঠিন্য দূরীকরণে

ইসবগুলে থাকে কিছু অদ্রবণীয় ও দ্রবণীয় খাদ্যআঁশের চমৎকার সংমিশ্রণ যা কোষ্ঠকাঠিন্যের জন্য খুব ভালো ঘরোয়া উপায় হিসেবে কাজ করে।এটি পাকস্থলীতে গিয়ে ফুলে ভেতরের সব বর্জ্য পদার্থ বাইরে বের করে দিতে সাহায্য করে। প্রাকৃতিকভাবে জলগ্রাহী হওয়ার কারনে পরিপাকতন্ত্র থেকে পানি গ্রহণ করে মলের ঘনত্বকে বাড়িয়ে দিয়ে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে ২ চামচ ইসবগুল এক গ্লাস কুসুম গরম দুধের সাথে মিশিয়ে প্রতিদিন ঘুমাতে যাবার আগে পান করে নিন।

ডায়রিয়া প্রতিরোধে

যদিও শুনলে অবাক লাগে, ইসবগুল একই সাথে ডায়রিয়া ও কোষ্ঠকাঠিন্য দুটিই প্রতিরোধ করতে সক্ষম। ডায়রিয়া প্রতিরোধে ইসবগুল দইয়ের সাথে মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়।কারন দইয়ে থাকা প্রোবায়োটিক পাকস্থলীর ইনফেকশন সারায় এবং ইসবগুল তরল মলকে শক্ত করতে সাহায্য করে খুব কম সময়ের মাঝে ডায়রিয়া ভালো করতে পারে। ডায়রিয়া প্রতিরোধে ২ চামচ ইসবগুল ৩ চামচ টাটকা দইয়ের সাথে মিশিয়ে খাবার পর খেতে হবে। এভাবে দিনে ২ বার খেলে বেশ কার্যকরী ফলাফল পাওয়া সম্ভব।

অ্যাসিডিটি প্রতিরোধে

বেশির ভাগ মানুষেরই অ্যাসিডিটির সমস্যা থাকে আর ইসবগুল হতে পারে এই অবস্থার ঘরোয়া প্রতিকার।ইসগুল খেলে তা পাকস্থলীর ভেতরের দেয়ালে একটা প্রতিরক্ষা মূলক স্তর তৈরি করে যা অ্যাসিডিটির বার্ন থেকে পাকস্থলীকে রক্ষা করে। এছাড়া এটি ���ঠিক হজমের জন্য এবং পাকস্থলীর বিভিন্ন এসিড নিঃসরণে সাহায্য করে।ইসবগুল অ্যাসিডিটিতে আক্রান্ত হওয়ার সময়টা কমিয়ে আনে। প্রতিবার খাবার পর ২ চামচ ইসবগুল আধা গ্লাস ঠাণ্ডা দুধে মিশিয়ে পান করুন। এটি পাকস্থলীতে অত্যাধিক এসিড উৎপাদন কমাতে সাহায্য করে অ্যাসিডিটির মাত্রা কমায়।

ওজন কমাতে

ওজন কমানোর উদ্দেশ্যকে সফল করতে ইসবগুল হচ্ছে উত্তম হাতিয়ার। এটি খেলে বেশ লম্বা সময় পেট ভরা থাকার অনুভূতি দেয় এবং ফ্যাটি খাবার খাওয়ার ইচ্ছাকে কমায়। এছাড়াও ইসবগুল কোলন পরিষ্কারক হিসেবেও পরিচিত।এটি পাকস্থলী থেকে বর্জ্য পদার্থ বের করে দিতে সাহায্য করে, হজম প্রক্রিয়াকে আরো বেশি কার্যকর করে স্বাস্থ্যবান থাকতে সাহায্য করে। ভেষজ শাস্ত্র অনুযায়ী এটি পাকস্থলীর দেয়ালে যেসব বর্জ্য পদার্থ থাকে তা পরিষ্কার করতে সাহায্য করে যা অন্যান্য হজমজনিত সমস্যাও দূর করে। কুসুম গরম পানিতে ২ চামচ ইসবগুল ও সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে ভাত খাবার ঠিক আগে খেতে হবে। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে খেলেও তা ওজন কমাতে সাহায্য করবে।

হজমক্রিয়ার উন্নতিতে

দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় খাদ্যআঁশে ভরপুর ইসবগুল হজম প্রক্রিয়াকে সঠিক অবস্থায় রাখতে সাহায্য করে।এটি শুধু পাকস্থলী পরিষ্কার রাখতেই সাহায্য করে না এটি পাকস্থলীর ভেতরের খাবারের চলাচলেও এবং পাকস্থলীর বর্জ্য পদার্থ নিষ্কাশনেও সাহায্য করে।তাই হজম প্রক্রিয়াকে উন্নত করতে নিয়মিতভাবে ইসবগুল খেতে পারেন। এছাড়া মাঠা বা ঘোলের সাথে ইসবগুল মিশিয়ে খেতে পারেন ভাত খাওয়ার পরপরই। তবে একটা ব্যাপার খেয়াল রাখতে হবে তা হল ইসবগুল মিশিয়ে রেখে না দিয়ে সাথে সাথেই খেয়ে ফেলতে হবে।

হৃদস্বাস্থ্যের সুস্থতায়

ইসবগুলে থাকা খাদ্যআঁশ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে যা আমাদেরকে হৃদরোগের থেকে সুরক্ষিত করে।হৃদরোগের সুস্থতায় ইসবগুল সাহায্য করে কারন এটি উচ্চ আঁশ সমৃদ্ধ এবং কম ক্যালরিযুক্ত। ডাক্তাররা সব সময় হৃদরোগ প্রতিরোধে এমন খাবারের কথাই বলে থাকেন।এটি পাকস্থলীর দেয়ালে একটা পাতলা স্তরের সৃষ্টি করে যার ফলে তা খাদ্য হতে কোলেস্টেরল শোষণে বাধা দেয় বিশেষ করে রক্তের সিরাম কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। এছাড়াও এটি রক্তের অতিরিক্ত কোলেস্টেরল সরিয়ে দেয় যা থাকলে ধমনীতে ব্লকের সৃষ্টি হতে পারে। এর ফলে তা হৃদরোগ এবং কোরোনারী হার্ট ডিজিজ থেকে আমাদের রক্ষা করে। তাই হার্টকে সুস্থ রাখতে নিয়মিত ভাবে খাবারের ঠিক পরে বা সকালে ঘুম থেকে উঠে ইসবগুল খান।

ডায়াবেটিস প্রতিরোধে

ইসবগুল যাদের ডায়াবেটিস আছে তাদের জন্য খুবই ভালো। এটি পাকস্থলীতে যখন জেলির মত একটি পদার্থে রূপ নেয় তখন তা গ্লুকোজের ভাঙ্গন ও শোষণের গতিকে ধীর করে। যার ফলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে থাকে। খাবার পর নিয়মিত ভাবে দুধ বা পানির সাথে ইসবগুল মিশিয়ে পান করুন ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে।তবে দইয়ের সাথে মিশিয়ে খাবেন না এতে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দিতে পারে।

পাইলস প্রতিরোধে

প্রাকৃতিক ভাবে দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় খাদ্যআঁশে ভরপুর ইসবগুল যারা পায়ুপথে ফাটল এবং পাইলসের মত বেদনাদায়ক সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য উত্তম। এটা শুধু পেট পরিষ্কার করতেই সাহায্য করেনা মলকে নরম করতে সাহায্য করে অন্ত্রের পানিকে শোষণ করার মাধ্যমে এবং ব্যাথামুক্ত অবস্থায় তা দেহ থেকে বের হতেও সাহায্য করে। এটি প্রদাহের ক্ষত সারাতেও সাহায্য করে। ২ চামচ ইসবগুল কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে ঘুমাতে যাবার আগে পান করুন।

সতর্কতা

এটি শুধুমাত্র উল্লেখিত সমস্যা গুলোর ঘরোয়া সমাধান। যদি খুব বেশি গুরুতর অবস্থা হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

ইসবগুল কেনার সময় দেখে নিন

ইসবগুল আমাদের দেশে বাজার থেকে শুরু করে সুপার মার্কেট সব জায়গাতেই বেশ সহজলভ্য। তবে কেনার আগে কিছু ব্যাপার অবশ্যই খেয়াল রাখবেন-

- প্যাকেটজাত ইসবগুল কিনুন

- কখনোই খোলা ইসবগুল কিনবেন না সেগুলো নষ্ট ও ভেজাল থাকতে পারে যার ফলে এটি খেয়ে হয়তো ভালো ফলাফল নাও পেতে পারেন।

- আজকাল প্যাকেটজাত বিভিন্ন ধরনের কৃত্রিম স্বাদের ইসবগুল পাওয়া যায়। তবে ভালো ফলাফল পেতে গেলে এসব কৃত্রিম স্বাদের ইসবগুল না খেয়ে সাধারণ ইসবগুল খান।

- বিভিন্ন দোকানে সাধারন ইসবগুলে কৃত্রিম স্বাদ ও রঙ যোগ করে বিশেষ কার্যকারিতার কথা বলে তা বিক্রয় করা হয় যা মূলত স্বাস্থ্যের জন্য খুবই খারাপ। তাই সাধারণ ইসবগুল খাওয়াই সবচেয়ে উত্তম।

লেখিকা শওকত আরা সাঈদা(লোপা) জনস্বাস্থ্য পুষ্টিবিদ এক্স ডায়েটিশিয়ান,পারসোনা হেল্‌থ খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান(স্নাতকোত্তর)(এমপিএইচ) মেলাক্কা সিটি, মালয়েশিয়া। তথ্য সূত্রঃ ডি হেলথ সাইট

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ মামুনুর রহমান
০৩ জুলাই, ২০২১ ০৭:২৭ পূর্বাহ্ণ

আপনাকে জানাই পবিত্র হজ্জ এবং ঈদ-উল-আযহার আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। মানসম্মত, শ্রেণি উপযোগী ও চমৎকার কনটেন্ট তৈরি করে শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা রইল। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট ও ব্লগগুলোতে লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ মতামত প্রদানের জন্য বাতায়নপ্রেমী সকলের নিকট বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। বাতায়ন আইডি : mamunggghsc10 , Profile Link : https://www.teachers.gov.bd/profile/mamunggghsc10 , My Content Link : https://www.teachers.gov.bd/content/details/1016044


মোহাম্মদ শাহাদৎ হোসেন
০২ জুলাই, ২০২১ ০৩:০৫ অপরাহ্ণ

👉 লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আবারও ধন্যবাদ।


জাহিদুল ইসলাম
০২ জুলাই, ২০২১ ০২:১৩ অপরাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম/ আদাব। লাইক রেটিং সহ আপনার জন্য রইলো শুভকামনা। শিক্ষক বাতায়নে আমার ৩৩ তম আপলোডকৃত কনটেন্টটি দেখে লাইক,সুচিন্তিত মতামত ও পূর্ণ রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।। কনটেন্ট লিংক: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1021275


মোঃ আবুল কালাম
০২ জুলাই, ২০২১ ০১:১৬ অপরাহ্ণ

আপনাকে লাইক,রেটিংসহ ধন্যবাদ। আমার কন্টেন্ট ও ব্লগ দেখে লাইক, রেটিং ও পরামর্শ আশা করছি।


বিপুল সরকার
০২ জুলাই, ২০২১ ১২:১৯ অপরাহ্ণ

🕊️পরম শ্রদ্ধাস্পদেষু বাতায়ন প্রেমী, অনিন্দ্য সুন্দর আপনার উপস্থাপন । শুভকামনা ও অভিনন্দন সহ বাতায়নে প্রবেশ করলে, আমার পাতায় স্বাগত। 💐💐


মোছাঃ হোসনেয়ারা পারভীন
০২ জুলাই, ২০২১ ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ

মানসম্মত কন্টেন্ট আপলোড করে বাতায়নকে সমৃদ্ধ করায় আপনাকে ধন্যবাদ। লাই্‌ক, রেটিং ও কমেন্ট সহ আপনার জন্য রইলো শুভকামনা। আমার আপলোডকৃত কন্টেন্ট ও ব্লগ দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ রইলো।


মোছাঃ শিরীন সুলতানা
০২ জুলাই, ২০২১ ১০:০৪ পূর্বাহ্ণ

লাইক পূর্ণরেটিং সহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। শিক্ষক বাতায়নে আমার আপলোডকৃত কনটেন্টটি দেখে লাইক,সুচিন্তিত মতামত ও পূর্ণ রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


মোঃ ফারুক হোসেন
০২ জুলাই, ২০২১ ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ণ

চমৎকার ও সময় উপযোগী কন্টেন্ট আপলোড করে শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য আন্তরিক অভিনন্দন। লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ শুভ কামনা রইল। আমার আপলোডকৃত কন্টেন্ট , ব্লগ ও চিত্র দেখে আপনার মূল্যবান মতামত কামনা করছি।


মোঃ মানিক মিয়া
০২ জুলাই, ২০২১ ০৯:৩৭ পূর্বাহ্ণ

আপনি কেমন আছেন? আশা করি মহান সৃষ্টি কর্তার মহিমায় ভাল আছেন। মান সম্মত ও গুনগত কন্টেন্ট আপলোড করেছেন এ জন্য আপনাকে লাইক,রেটিং সহ ধন্যবাদ। আমার ৪২ তম কন্টেন্ট দেখে লাইক, রেটিং ও গঠনমূলক মতামত ও পরামর্শ আশা করছি। https://www.teachers.gov.bd/content/details/996274


লুৎফর রহমান
০২ জুলাই, ২০২১ ০৯:১৬ পূর্বাহ্ণ

Best wishes with full ratings. Sir/Mam Please visit my Batayon house.


মুহাম্মদ সফিকুল আলম
০২ জুলাই, ২০২১ ০৯:০০ পূর্বাহ্ণ

লাইক এবং রেটিং সহ শুভ কামনা রইলো। আমার পেইজে আপনাকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।


দেলওয়ারা বেগম
০২ জুলাই, ২০২১ ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


আবু নাছির মোঃ নুরুল্লা
০২ জুলাই, ২০২১ ০৮:২৭ পূর্বাহ্ণ

লাইক রেটিং সহ আপনার জন্য রইলো শুভকামনা। শিক্ষক বাতায়নে আমার আপলোডকৃত কনটেন্টটি দেখে লাইক,সুচিন্তিত মতামত ও পূর্ণ রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


সন্তোষ কুমার বর্মা
০২ জুলাই, ২০২১ ০৮:১৫ পূর্বাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ ধন্যবাদ আমার কন্টেন্ট দেখার জন্য অনুরোধ করছি।