সামসুর রাহমান। স্বাধীনতা তুমি! রোদেলা দুপুরে মধ্য পুকুরে গ্রাম্য মেয়ের অবাধ সাতার!

মোছাঃ আমেনা খাতুন ০৯ নভেম্বর,২০২১ ৭৬ বার দেখা হয়েছে ১১ লাইক ১৪ কমেন্ট ৫.০০ (১৩ )

কবি শামসুর রাহমান ১৯২৯ সালের ২৩ অক্টোবর পুরান ঢাকার ৪৬ নং মাহুতটুলীতে জন্মগ্রহন করেন । তার পৈত্রিক বাড়ি নরসিনদী জেলার রায়পুর থানার পাড়াতলী গ্রামে।পিতা মোখলেসুর রহমান চৌধুরী এবং মাতা আমেনা খাতুন । শামসুর রাহমান বিশ শতকের দ্বিতীয়ার্ধে বাংলা সাহিত্যের অন্যতম কবি হিসেবে খ্যাত । তিনি ঢাকার পোগোজ স্কুল থেকে ১৯৪৫ সালে ম্যাট্রিকুলেশন এবং ১৯৪৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে আই এ পাস করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগে ভর্তি হন । কিন্তু তিনি অনার্স ফাইনাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেননি । তবে তিনি ১৯৫৩ সালে বি এ (পাস কোর্স) করেন। আঠারো বছর বয়সে শামসুর রাহমান প্রথম কবিতা লেখা আরম্ভ করেন। ১৯৪৩ সালে তাঁর প্রথম কবিতা “উনিশ শ উনপঞ্চাশ’’ প্রকাশিত হয় নলিনীকিশোর গুহ সম্পাদিত সোনার বাংলা পত্রিকায় । বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রজীবনে ১৩ জন তরুণ কবির কবিতার সংকলন, নতুন কবিতায় তাঁর পাঁচটি কবিতা তাঁর কবি পরিচয়কে সুধী মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন । “ রুপালি স্নান’কে বলা যায় শামসুর রাহমানের আগমনী কবিতা । এর সর্বাংশেই জড়িয়ে আছে তাঁর স্বকীয়তা ও সৃষ্টিশীলতার চিহ্ন । শামসুর রাহমান ১৯৫৭ সালে সাংবাদিকতা জীবন শুরু করেন ইংরেজী দৈনিক মর্নিং নিউজ এর সহসম্পাদক হিসেবে । কিছুদিন এ পত্রিকায় কাজ করার পর তিনি পেশা পরিবর্তন করে যোগ দেন রেডিও পাকিস্তানে । ১৯৬০ থেকে ১৯৬৪ সাল পর্যন্ত তিনি রেডিও তে কাজ করার পর ১৯৬৪ সালে মর্নিং নিউজে উচ্চতর পদে যোগ দেন । তিনশো টাকায় আমি প্রথম কাব্যের এ সনেটে , চাকুরি জীবনের ঠুনকো নিশ্চয়তা ও বাস্তবিক পরনির্ভরতা বিষয়ে রসিকতা করেছেন কবি নিজেকে নিয়ে । তাঁর দ্বিতীয় কাব্যের জন্য আদমজী পুরস্কারে ভূষিত হন । পুরষ্কারটি প্রদান করেছিলেন প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খান । পুরো এক দশক (১৯৭৭ -১৯৮৭) শামসুর রাহমান দৈনিক বাংলা (স্বাধীন বাংলাদেশ দৈনিক পাকিস্তান ,দৈনিক বাংলায় পরিণত হয় ) ও সাপ্তাহিক বিচিত্রার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন । বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্য শামসুর রাহমান আদমজী পুরষ্কার(১৯৬৩) বাংলা একাডেমী পুরষ্কার (১৯৬৯) জীবনানন্দ পুরষ্কার (১৯৭৩) একুশে পদক (১৯৭৭) আবুল মনসুর আহমদ স্মৃতি পুরষ্কার(১৯৮১) নাসিরউদ্দীন স্বর্ণ পদক (১৯৮১) ভাসানী পুরষ্কার (১৯৮২) পদাবলী পুরষ্কার(১৯৮৪) স্বাধীনতা পুরষ্কারে(১৯৯২) ভূষিত হন। সাংবাদিকতায় অবদানের জন্য ১৯৮২ সালে তিনি জাপানের মিতসুবিশি পুরষ্কার পান । ১৯৯৪ সালে কলকাতায় আনন্দ বাজার পত্রিকা তাঁকে আনন্দ পুরষ্কারে ভূষীত করে। ওই বছর তাঁকে সাম্মানিক ডিলিট উপাধীতে ভূষিত করে যাদবপুর  বিশ্ববিদ্যালয়। ১৭ই আগস্ট ২০০৬ ঢাকায় তার

মৃত্যু হয় ।                                             

                                               

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
উম্মে কুলছুম
২৬ জানুয়ারি, ২০২২ ০১:০১ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ অনেক শুভ কামনা। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান লাইক,রেটিং ও মতামত দেয়ার অনুরোধ রইলো।


উম্মে কুলছুম
২৬ জানুয়ারি, ২০২২ ০১:০১ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ অনেক শুভ কামনা। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান লাইক,রেটিং ও মতামত দেয়ার অনুরোধ রইলো।


উম্মে কুলছুম
২৬ জানুয়ারি, ২০২২ ০১:০১ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ অনেক শুভ কামনা। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান লাইক,রেটিং ও মতামত দেয়ার অনুরোধ রইলো।


মুন্নি বানু
১৬ নভেম্বর, ২০২১ ০৭:৪৭ অপরাহ্ণ

সুন্দর উপস্থাপন


মোঃ আব্দুর রাজ্জাক
১০ নভেম্বর, ২০২১ ০৮:৩৮ অপরাহ্ণ

সুন্দর উপস্থাপনা। আপনার জন্য রইল শুভকামনা।আমার কনটেন্ট সম্পর্কে আপনার সুচিন্তিত মতামত ও পরামর্শ কামনা করছি। https://www.teachers.gov.bd/content/details/1170607


মোছাঃ আমেনা খাতুন
১০ নভেম্বর, ২০২১ ১০:০৪ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ


মন্তোষ ভৌমিক
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ১০:২৬ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


মোছাঃ আমেনা খাতুন
১০ নভেম্বর, ২০২১ ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ


লুৎফর রহমান
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৬:৫৩ অপরাহ্ণ

Great work! Thanks for nice content and best wishes including full ratings. Your active participation and the creativity of your wonderful contents have made the Batayon more enriched. Please give your like, comments and ratings to watch my all contents PowerPoint, blog, image, video and publication of this fortnight. Link: Powerpoint: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1168814 Blog: https://www.teachers.gov.bd/blog-details/629227 Video : https://www.teachers.gov.bd/content/details/1171484 Video 2: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1164369 Publication: https://www.teachers.gov.bd/content/details/1159264 Batayon ID: https://www.teachers.gov.bd/profile/Lutfor%20Rahman


মোছাঃ আমেনা খাতুন
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৬:৫৮ অপরাহ্ণ

Thanks sir


মোঃ ওয়াজেদুর রহমান
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৬:৩৮ অপরাহ্ণ

বাস্তবসম্মত ও যুগোপযুগী সমসাময়িক বিষয়ে ব্লগ আপলোড করে শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্যআপনাকে ধন্যবাদ। লাইক ও পূর্নরেটিং সহ আপনার জন্য শুভ কামনা। আমার চলতি পাক্ষিকের আপলোড কৃত.১০৭ তম কন্টেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।আমার কনটেন্ট লিঙ্ক ৩৬০ তম ভিডিও লিঙ্ক www.teachers.gov.bd/content/details/1150210 ৬০২তম ছবি লিঙ্ক www.teachers.gov.bd/content/details/১১৭৬৪৭৫ https://www.teachers.gov.bd/content/details/১১৭৬৩৮৩আমার ১৩৯ তম ব্লগ লিঙনhttps://www.teachers.gov.bd/blog/details/৬২৯১৩৯


মোছাঃ আমেনা খাতুন
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৬:৫৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


গোলাম হোসেন
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৪:১০ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং ও লাইকসহ শুভকামনা ও অভিনন্দন। আমার কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত , রেটিংও লাইক প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। teachers.gov.bd/content/details/1172740


মোছাঃ আমেনা খাতুন
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৬:৫৯ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার


মোছাঃ আমেনা খাতুন
০৯ নভেম্বর, ২০২১ ০৬:৫৯ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার