চিত্র

আল কোরআনের ফজিলত ও মর্যাদা

মো: হুমায়ুন কবির ০৫ সেপ্টেম্বর,২০২০ ৫৯ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( )

  1. আমাদের প্রিয় নবি(স) এবং তার সাহাবিগণ প্রতিদিন কুরআন তিলাওয়াত করতেন, কুরআনের শিক্ষা অনুযায়ী আমল করতেন। কুরআন তিলাওয়াত শিক্ষা করা অত্যন্ত জরুরী। কেননা সালাতে (নামাযে) কুরআন পড়তে হয়।
  2. আল কোরআন পাঠকারীর পিতা-মাতাকে কিয়ামতের ময়দানে হাশরে নুরের টুপি পরানো হবে। হজরত মুয়াজ আল জুহানি (রা.) থেকে বর্ণিত। রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি কোরআন পড়ে এবং এর ওপর আমল করে, তার মাতা-পিতাকে কিয়ামতের দিন এমন একটি নুরের টুপি পরানো হবে, যার জ্যোতি দুনিয়ার সূর্যের জ্যোতি অপেক্ষা অধিক হবে।’ আবু দাউদ, মুসতাদরাক আলাস সহিহাইন।
  3. আরেকটি হাদিস থেকে জানা যায়, কোরআন তার পাঠকারীর জন্য কিয়ামতের দিন সুপারিশ করবে। তাই রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের বেশি বেশি কোরআন তিলাওয়াতের নির্দেশ দিয়েছেন। আবু উমামা আল বাহিলি (রা.) থেকে বর্ণিত। রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘তোমরা কোরআন তিলাওয়াত কর। কেননা, কিয়ামতের দিন কোরআন তার তিলাওয়াতকারীর জন্য সুপারিশ করবে।’ মুসলিম, মুসনাদে আহমাদ। আমাদের প্রত্যেকের অবশ্যকর্তব্য নিয়মিত কোরআন পড়া, আল কোরআনের চর্চা করা। নয় তো আমাদের অন্তর বিরান ঘরের মতো হয়ে যাবে।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মোঃ শফিকুল ইসলাম
০৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৮:১৫ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ অসংখ্য শুভকামনা । আমার কনটেন্ট ও ভিডিও কন্টেন্ট গুলো দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


মো: হুমায়ুন কবির
০৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

আপনার মূল্যবান মতামতের জন্য ধন্যবাদ।