চিত্র

কৈশোরকালীন পুষ্টি কার্যক্রম প্রশিক্ষন সনদ

মোঃ তাজুল ইসলাম ১৪ ডিসেম্বর,২০২০ ৬৭ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( )

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সংজ্ঞা  অনুযায়ী ১০ থেকে ১৯ বছর বয়স সীমাকে বয়ঃসন্ধিকাল বলে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ২০১৭ অনুযায়ী বিশ্বে মোট জনসংখ্যার ১.২ মিলিয়ন অর্থাৎ ৬ ভাগের ১ ভাগ হচ্ছে কিশোর কিশোরী বাংলাদেশে পরিসংখ্যান ব্যুরো ২০২০ প্রজেকশন অনুযায়ী বর্তমানে আমাদের দেশে মোট জনসংখ্যার বিশ শতাংশ অর্থাৎ ৩ কোটি ৪৩ লক্ষ কিশোর কিশোরী এদের মধ্যে ৪৯ শতাংশ অর্থাৎ ১ কোটি ৬৭ লক্ষ কিশোরী এবং ৫১ শতাংশ অর্থাৎ ১ কোটি ৭৫ লক্ষ কিশোর। কিশোর কিশোরীদের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ স্বাস্থ্যের উপর পুষ্টির ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। কৈশোর কালীন বয়সে টেকসই ও পুষ্টিকর খাদ্যাভ্যাস পুষ্টিহীনতা এবং জীবনের প্রথম দশকের খর্বকায়তা নিয়ন্ত্রনে সক্ষম। স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাদ্যাভ্যাস কিশোর কিশোরীদের পরিনত বয়সে অসংক্রামক রোগ থেকে দুরে রাখতে পারে।তাই মাধ্যমিক পর্যায়ে কৈশোরকালীন পুষ্টি প্রশিক্ষন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মুহাঃ রুহুল আমিন
২১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:০৩ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


মোঃ তাজুল ইসলাম
২২ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:০০ পূর্বাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার/ম্যাডাম। আমার এ পাক্ষিকের কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য । সুস্থ থাকুন নিরাপদে থাকুন।


মোহাম্মদ শাহাদৎ হোসেন
১৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:০০ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আবারও ধন্যবাদ।


মোঃ তাজুল ইসলাম
২১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৭:০৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার/ম্যাডাম। আমার এ পাক্ষিকের কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য । সুস্থ থাকুন নিরাপদে থাকুন।


মোঃ মেহেদুল ইসলাম
১৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৫:৫৫ অপরাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম। শ্রদ্ধেয় প্যাডাগজি রেটার, এডমিন, সেরা কনটেন্ট নির্মাতা, শিক্ষক বাতায়নের সকল শিক্ষক- শিক্ষিকা ও আইসিটি জেলা অ্যাম্বাসেডর স্যারদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা http://teachers.gov.bd/content/details/803228


মোঃ তাজুল ইসলাম
২১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৭:০৮ অপরাহ্ণ

ধন্যবাদ স্যার/ম্যাডাম। আমার এ পাক্ষিকের কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও রেটিং প্রদান করার জন্য । সুস্থ থাকুন নিরাপদে থাকুন।