খবর-দার

মাদরাসার সংশোধিত এমপিও নীতিমালা পূনর্বিবেচনা ও শতভাগ উৎসব ভাতা দাবি

মোঃ ওবায়দুর রহমান ( সুমন ) ২৭ ফেব্রুয়ারি ,২০২১ ৬ বার দেখা হয়েছে লাইক কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( )

মাদরাসার সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো পুনর্বিবেচনা করা দাবি জানিয়েছেন মাদরাসা জেনারেল টিচার্স

অ্যাসেসিয়শনের নেতারা। তাদের মতে, এমপিও নীতিমালায় মাদরাসায় কর্মরত জেনারেল টিচারদের বঞ্চিত করা হয়েছে। একই সাথে অসন্ন ঈদুল ফিতরে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের পূর্নাঙ্গ উৎসবভাতা দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। 

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে সংগঠনটির টাঙ্গাইল জেলা কমিটির সম্মেলন অনুষ্ঠানে এসব দাবি জানানো হয়।  

টাঙ্গাইল সাধারণ গ্রন্থাগার অডিটোরিয়ামে অ্যাসোসিয়েশনের টাঙ্গাইল জেলা সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সিনিয়র সাংগঠনিক সম্পাদক মো.শফিউল আজমের সভাপতিত্বে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মো. জহির উদ্দিন হাওলাদার। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মাদরাসা) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ এর ২৩ নভেম্বর ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত সংশোধনীতে মাদরাসায় কর্মরত জেনারেল শিক্ষকদেরকে সম্পূর্ণভাবে বঞ্চিত করা হয়েছে। সংশোধিত নীতিমালার প্রতি ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করে তা পূনর্বিবেচনা করার দাবি জানান তিনি। 

তিনি সকল শিক্ষা ব্যবস্থা সরকারিকরণের দাবি জানান। এছাড়া শিক্ষকদের বাড়ি ভাড়া প্রদান, বদলি শুরু, অনুপাত প্রথা ও জ্যেষ্ঠ প্রভাষক পদ বিলুপ্ত করে সকল প্রভাষককে পর্যায়ক্রমে সহকারী অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক ও অধ্যাপক পদে পদোন্নতির সুযোগ দেয়ার দাবি জানান। একইসাথে মাদরাসার প্রশাসনিক পদে জেনারেল শিক্ষক নিয়োগদের দেয়ার আহ্বান জানান। একইসাথে আসন্ন ঈদুল ফিতরে পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা প্রদানের জোর দাবি জানান।

এ সময়ে সম্মেলনের প্রধান আলোচক সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির মহাসচিব মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, সারা দেশে উপজেলা পর্যায়ে একটি করে স্কুল ও কলেজ সরকারিকরণ করা হলেও একটি মাদরাসাও সরকারিকরণ না করে মাদরাসা শিক্ষায় চরম বৈষম্য তৈরি করা হয়েছে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরকে উপবৃত্তি দেয়া হলেও মাদরাসার ইবতেদায়ি শাখায় উপবৃত্তি দেয়া হয়না। তিনি মাদরাসার এই বৈষম্য দূরীকরণে প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটিরসহ অর্থ সম্পাদক মো. কামাল হোসেনের সঞ্চালনায় সম্মেলনে আলোচনা করেন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি মো. ফজলুল বারী, অর্থ সম্পাক মো. খোরশেদ কবির মাসুদ, আন্তর্জাতিক সম্পাদক মো. নেকবর হোসেন, মো. দেলোয়ার হোসেন, মো. আব্দুস সালাম, মোহাম্মদ আলী, মো. শামিম রেজাসহ টাঙ্গাইল জেলা কমিটির নেতারা।

আলোচনা শেষে মো. শফিউল আজমকে সভাপতি ও মোঃ কামাল হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করে ৩৫ সদস্য বিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
লুৎফর রহমান
২৮ ফেব্রুয়ারি , ২০২১ ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমার এ পাক্ষিকে আপলোডকৃত ৫৩ তম কনটেন্ট ও ব্লগ দেখে লাইক,গঠন মূলক মতামত ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি। কনটেন্ট লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/880562