প্রকাশনা

আমেরিকানদের গল্প: একটি কমিউনিটি নতুন করে গড়ে তোলা

মোঃ শাখাওয়াৎ হোসেন মন্ডল ০৮ মে,২০২১ ৪১ বার দেখা হয়েছে ১১ লাইক কমেন্ট ৫.০০ রেটিং ( ১০ )

আমেরিকানদের গল্প: একটি কমিউনিটি নতুন করে গড়ে তোলা

এটি আমেরিকান নাগরিকদের নিয়ে চার খণ্ডের রেকর্ডিং সিরিজের তৃতীয় পর্ব। অন্যগুলো হলো সান্তার সহায়তাকারীর বংশধরট্যাক্সিচালক বাবা ও ছেলে এবং এক বিশেষ দায়িত্ব পাওয়া চ্যাপলিনের কাহিনী।

গল্প কেবল ক্যাম্প ফায়ারের চারপাশে বসে বা বাচ্চাদের ঘুম পাড়ানোর সময় বলার বিষয় নয়। অনেক সময় একটি সময় বা স্থানকে চিহ্নিত করা যায় গল্প দিয়ে। কখনো তা তুলে ধরে সর্বজনীন সত্যকেও। এজন্যই বিভিন্ন দুঃখের গল্প, মজার গল্প এবং এমনকি হৃদয়কে নাড়া দেওয়া ভাবগম্ভীর গল্প সংরক্ষণ করে লাইব্রেরি অব কংগ্রেসের ফোকলাইফ সেন্টার। এ লাইব্রেরির কথ্য ইতিহাসের সংগ্রহের সংখ্যা সাড়ে ৬ লাখ যা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে। বিশ্বে মানব কণ্ঠের  বৃহত্তম একক সংগ্রহ এটাই।

প্রকল্পটি এসেছে রেডিও অনুষ্ঠানের প্রযোজক ডেভ আইসের মাথা থেকে। ২০০৩ সালে তিনি এর নাম দেন স্টোরি কোর। স্টোরি কোর হচ্ছে অনুদানের  অর্থে চলা একটি স্বাধীন অলাভজনক সংস্থা।

প্রথম প্রথম দু’জন ব্যক্তি নিউ ইয়র্কের গ্র্যান্ড সেন্ট্রাল টার্মিনালের একটি রেকর্ডিং বুথে কথোপকথনের মাধ্যমে গল্পগুলো তুলে ধরতেন। এখন আটলান্টা এবং শিকাগোতেও সাউন্ড বুথ এবং মোবাইল রেকর্ডিং ব্যবস্থা যোগ করা হয়েছে। করোনা

করোনা মহামারী শুরু হওয়ার পর  স্টোরি কোর  ফোন ও কম্পিউটার দিয়ে  সাক্ষাত্কার নেওয়ার  একটি নতুন ব্যবস্থার সূচনা করে যার মাধ্যমে  সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ঘরবন্দি সময়ে আমেরিকানরা গল্প বলার একটা সুযোগ পান।

স্টোরি কোরের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কলিন রস বলেন, ‘অন্যদের কাহিনি শোনার মাধ্যমে আমরা বিশ্বব্যাপী মানবজাতির অভিন্ন ছবিটি আরও ভালোভাবে বুঝতে পারি।…অন্যের কথা শোনা ভালোবাসার এক ধরনের বহিঃপ্রকাশ। ক্রমেই তা হয়ে উঠছে মানুষে মানুষে মমতা ও সহানুভূতি গড়ে তোলার এক জরুরি কৌশল।

শেয়ারআমেরিকা আমাদের পছন্দের গল্পগুলো তুলে ধরছে।এর মধ্যে একটি হচ্ছে হারিকেনের আঘাত কাটিয়ে উঠতে নিজের এলাকার মানুষকে সহায়তা করতে এক ব্যক্তির দৃঢ়সংকল্প নিয়ে।গল্পটি এরকম:

একটি  ক্যান খাবার নিয়ে কমিউনিটির  পাশে দাঁড়ানো

২০০৫ সালে হারিকেন ক্যাটরিনা বারনেল কোটলনের নিউ অরলিন্সের দারিদ্র্যপীড়িত পাড়াটির অনেকটাই ভাসিয়ে নিয়েছিল।তারপরের দীর্ঘ তিন বছর একটি ট্রেলারে কাটিয়েছিলেন তিনি।

প্রলয়ঙ্করী সেই ঝড়ের পর অন্য অনেকেই লোয়ার নাইন্থ ওয়ার্ড পাড়া ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। অনেক লোক আর ফিরে আসেননি। সেখানে কোটলন ঠিকই একটা প্রয়োজনীয় কাজ খুঁজে নিলেন। ধ্বংসস্তুপের মধ্যে এলাকার জন্য একটি বিপণি গড়ে তুললেন তিনি।

২০২০ সালে করোনা ভাইরাস আঘাত হানার পরে আবার দৃশ্যপটে এলো কোটলনের লোয়ার নাইন্থ ওয়ার্ড বিপণি। অসুস্থতা আর বেকারত্বের মুখোমুখি নুতন করে বিপর্যস্ত এলাকাবাসীকে সহায়তা করেছে এ বিপণি। বাজার কর্তৃপক্ষ মাঝে মাঝে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের বিনামূল্যে খাবার দিয়েছে। কখনো কখনো আবার দিয়েছে ঋণ। কোটলন ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’ অনুষ্ঠানকে এ বিষয়ে বলেন, ‘আমি আমার সারা জীবনের সঞ্চয় দিয়ে এটা করেছি।…তবে আমি রাতে খুব ভাল ঘুমাই। আমার কোনো আক্ষেপ নেই।’

স্টোরি কোরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কোটলনের মা লিলি প্রথম প্রথম ছেলের উদ্যোগ নিয়ে তার সংশয় হওয়ার কথা বলেন। সেই সঙ্গে তার প্রশংসাও করেন। মায়ের কথায়, ‘বারনেল কোথাও সম্ভাবনা থাকলে ঠিকই তা দেখে। অন্যরা হয়তো লক্ষ্য করে না।’

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
আব্দুল আলীম
২৭ মে, ২০২১ ০৪:৫৩ অপরাহ্ণ

চমৎকার ও সময় উপযোগী কন্টেন্ট আপলোড করে প্রিয় শিক্ষক বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য আন্তরিক অভিনন্দন। লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ শুভ কামনা। চলতি পাক্ষিকে আমার আপলোডকৃত ৬৮তম কন্টেন্ট ও ৭২তম ব্লগ দেখে আপনার মূল্যবান মতামত কামনা করছি। ভাল থাকুন, নিরাপদে থাকুন ও ঘরেই থাকুন। কন্টেন্ট লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/content/details/945992 ব্লগ লিংকঃ https://www.teachers.gov.bd/blog-details/601995


Ayasha Siddiqua
২৩ মে, ২০২১ ০৯:০১ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা রইলো।


বিপুল সরকার
১০ মে, ২০২১ ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ

স্যার আপনি মানসম্মত প্রকাশনা বাতায়নে আপলোড করার জন্য আপনাকে অভিনন্দন সেই সাথে আমার (৪৫-কন্টেন্ট তম পরিমিতি ঘনবস্তু) কন্টেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মন্তব্য প্রত্যাশা করছি।


মোঃ মামুনুর রহমান
১০ মে, ২০২১ ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ

মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং মুজিব শতবর্ষ ও পবিত্র মাহে রমজানের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। চমৎকার ও মানসম্মত কনটেন্ট এর জন্য পূর্ণ রেটিংসহ শুভকামণা রইল। এই পাক্ষিকের আমার ০১/০৫/২১ তারিখের ৯ম ও ১০ম শ্রেণির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের "মাল্টিমিডিয়া ও এর মাধ্যমসমূহ" সম্পর্কিত কনটেন্টটিতে লাইক, কমেন্ট, শেয়ার ও পূর্ণ রেটিং প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের নিকট বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। এছাড়াও সম্মানিত প্যাডাগোজি রেটার ও এডমিন প্যানেল মহোদয়, সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা, সেরা উদ্ভাবক, আইসিটি জেলা অ্যাম্বাসেডরবৃন্দ ও সেরা অনলাইন পারফর্মারদের নিকট গুরুত্বপূর্ণ মতামতসহ পূর্ণ রেটিং আশা করছি। বাতায়ন আইডি : mamunggghsc10 , Profile Name : মোঃ মামুনুর রহমান , Content Link : https://www.teachers.gov.bd/content/details/932646 Video Content Link : https://www.teachers.gov.bd/content/details/936598 Blog Post Link : https://www.teachers.gov.bd/blog-details/601039


মোঃ গোলজার হোসেন
১০ মে, ২০২১ ০৯:১৫ পূর্বাহ্ণ

খুবসুন্দর উপস্থাপন। লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।আমার ছবিতে ক্লিক করে আমার আপলোডকৃত কনটেন্টটি দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ এবং লাইক ও রেটিং প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।


মোঃ মানিক মিয়া
০৯ মে, ২০২১ ০৪:০০ পূর্বাহ্ণ

পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।আশা করি প্রিয় স্যার ও ম্যাডাম আল্লাহর রহমতে ভাল আছেন, সুস্থ্য আছেন।শ্রেনী উপযোগী, সৃজনশীল ও গুণগত মানসম্মত কন্টেন্ট আপলোড করে আমার প্রিয় শিক্ষক বাতায়নকে সম্মৃদ্ধ ও প্রসংশিত করায় আপনাকে লাইক ও রেটিংসহ অশেষ ধন্যবাদ।চলতি পাক্ষিকে আমার ৯ম শ্রেণীর, উচ্চতর গণিতের, প্রেজেন্টশন কন্টেন্ট ,"পিরামিড" উদ্ভাবনের গল্প "আইসিটিতে বাংলাদেশ",ম্যাগাজিন ,একাধিক ব্লগ, ভিডিও কন্টেন্ট ও প্রকাশনা আপলোড করা হয়েছে। আপনার সুচিন্তিত মতামত ও পরামর্শ একান্ত প্রয়োজন।ধন্যবাদ। www.teachers.gov.bd/content/details/933498 www.teachers.gov.bd/content/details/934787


মোঃ আবুল কালাম
০৯ মে, ২০২১ ০১:৫৫ পূর্বাহ্ণ

শ্রেণি উপযোগী ও মানসম্মত কনটেন্ট আপলোড করে বাতায়নকে সমৃদ্ধ করার জন্য আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ। লাইক ও পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভকামনা রইলো। আমার আপলোডকৃত কনটেন্ট দেখে আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।


আজিজুল হক
০৮ মে, ২০২১ ১০:১৯ অপরাহ্ণ

লাইক ও রেটিংসহ আপনার জন্য রইলো শুভকামনা। আমার কন্টেন্ট দেখে লাইক ও রেটিংসহ আপনার মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ রইলো


লুৎফর রহমান
০৮ মে, ২০২১ ০৬:৩২ অপরাহ্ণ

Ramadan and Eid-Ul-Fitre greetings. Thanks for nice content and best wishes including full ratings. Your active participation and submission of your wonderful contents have made the Batayon more enriched. Please give your like, comments and ratings to see my contents and blogs. https://www.teachers.gov.bd/content/details/933133 Blog link: https://www.teachers.gov.bd/blog-details/600842