প্রকাশনা

আজকের দিনে উড়েছিল মানচিত্র খচিত বাংলাদেশের পতাকা।

মোঃ হাসনাইন ০২ মার্চ,২০২০ ৫২ বার দেখা হয়েছে ১২ লাইক ২০ কমেন্ট ৪.৭৭ রেটিং ( ১৩ )

২ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় অনুষ্ঠিত ঐতিহাসিক ছাত্র সমাবেশে বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত পতাকা উত্তোলন করা হয়। সবুজ, লাল, সোনালি—এই তিন রঙের পতাকাটি সেই যে বাংলার আকাশে উড়েছিল তা আর নামাতে পারেনি পাকিস্তানের সুসজ্জিত সেনাবাহিনী ও সরকার।

‘জয় বাংলা’, ‘পিন্ডি না ঢাকা? ঢাকা ঢাকা’, ‘বীর বাঙালি অস্ত্র ধর বাংলাদেশ স্বাধীন কর’— মার্চে বাংলার আকাশ বাতাস স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে উঠেছিল। দিকে দিকে শুরু হয় পাকিস্তানের পতাকা পোড়ানো। আর এই সময়টাকেই ছাত্রনেতারা বেছে নিলেন বাংলার স্বাধিকার আন্দোলনকে স্বাধীনতা সংগ্রামে পরিপূর্ণভাবে রূপান্তর করার মোক্ষম মুহূর্ত হিসেবে। এই দিনটিই পরবর্তীকালে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অভ্যুদয়ের পর পতাকা উত্তোলন দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

কোনো রকম প্রস্তুতি ছিল না। কে পাশে এসে দাঁড়াবে, কে দেবে সহযোগিতা—কিছুই জানতো না বাংলার খেটে খাওয়া সাধারণ জনগণ। পাকিস্তানের সুশিক্ষিত সামরিক বাহিনীর সঙ্গে লড়তে হলে যে প্রস্তুতি প্রয়োজন, ছিল না তার কোনো কিছুই। তারপরও অপমান, বঞ্চনার বিরুদ্ধে লড়তে সমস্ত কিছুকে তুচ্ছ জ্ঞান করে বাংলার কৃষক, শ্রমিক, ছাত্র, চাকরিজীবী সবাই যুদ্ধে নামতে এককথায় প্রস্তুত হয়েছিল। কারণ, ২৩ বছর ধরে পাকিস্তানিদের অন্যায় নিষ্পেশন থেকে মুক্ত হতে জনযুদ্ধের যে কোনো বিকল্প নেই সেটা পুরোপুরি উপলব্ধি করেছিল এই ভূখণ্ডের বাসিন্দারা।

আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের অভ্যন্তরে গোপনে একটি স্বাধীন বাংলা বিপ্লবী পরিষদ গঠন করেছিলেন এই ছাত্র সংগঠনের মূল নেতারা। এই কাজটি তারা করেছিলেন ১৯৬৯ সালে, ১১ দফা আন্দোলন চলার সময়। এই বিপ্লবী পরিষদের সদস্যদের ভাবনায় বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার নকশা ছিল। ১৯৭১ সালের পহেলা মার্চ পাকিস্তানিদের বিশ্বাসঘাতক চেহারা আবারও উন্মোচিত হয় বাংলার মানুষের সামনে। এর প্রতিবাদে ছাত্রনেতারাও তার জবাব দেবার সিদ্ধান্ত নেয়। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক জনসভা আহ্বান করা হয় ২ মার্চ। সেই বিশাল সভায় পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি আ স ম আব্দুর রব, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস মাখন, ছাত্রলীগ সভাপতি নূরে আলম সিদ্দিকী ও সাধারণ সম্পাদক শাজাহান সিরাজ স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন।

ছাত্রনেতারা পরদিন অর্থাত্ ৩ মার্চ, ১৯৭১ পল্টন ময়দানে জনসভা করে সেখানে বাংলাদেশের পতাকা তোলেন এবং একই সঙ্গে স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠ করেন। এতে শুরুতেই উল্লেখ করা হয়, ‘স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ ঘোষণা হয়েছে।’

মতামত দিন
সাম্প্রতিক মন্তব্য
মেফতাহুন নাহার
২৫ মে, ২০২০ ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ

শুভেচ্ছা-অভিনন্দন ও শুভকামনা। আমার কনটেন্টগুলো দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


সুজিৎ কুমার বিশ্বাস
৩১ মার্চ, ২০২০ ০৫:৩৬ অপরাহ্ণ

সুন্দর


মোঃ গোলাম ওয়ারেছ
৩০ মার্চ, ২০২০ ০৯:১২ পূর্বাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সাথে অসংখ্য শুভকামনা। শ্রদ্ধেয় প্যাডাগোজি স্যার, রেটার মহোদয়, সেরা কন্টেন্ট নির্মাতাগণ, সেরা উদ্ভাবক, সেরা নেতৃত্ব এবং শিক্ষক বাতায়নের সকল স্যার ম্যাডামগন দয়া করে আমার সি প্রোগ্রামের উপর তৈরীকৃত সাধনার ২৮ নং কন্টেন্ট দেখে সুচিন্তিত মতামত, লাইক ও রেটিং প্রদানের অনুরোধ রইল। করোনার হাত থেকে করুনাময় আল্লাহ আমাদের সবাইকে হেফাজত করুন। সবাই আমরা সচেতন হই। খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের না হই এবং হাত সাবান দিয়ে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড ধৌত করি, বালিশের কভার প্রতিদিন পরিবর্তন করি, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকি । সবুজ শাকসবজি খাই, ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার খাই এবং প্রচুর পানি পান করি। করোনা প্রতিরোধে আমরা সবাই সবাইকে সচেতন করি। মোঃ গোলাম ওয়ারেছ ICT4E জেলা অ্যাম্বাসেডর , বেলকুচি, সিরাজগঞ্জ। সবাইকে ধন্যবাদ।


মোঃ জহিরুল ইসলাম
২২ মার্চ, ২০২০ ০৬:১৭ অপরাহ্ণ

করোনার এই করুন মুহূর্তেও শিক্ষক বাতায়নকে উত্তর উত্তর সমৃদ্ধ করতে আপনার এ প্রয়াস সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। অনিন্দ্য সুন্দর এই কন্টেন্টের জন্য আপনাকে নিরন্তর শুভেচ্ছা । দেশ ও জাতির সাথে সাথে আপনার আমার সবার পরিবারের সুরক্ষা কামনা করছি মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে । সত ব্যস্ততার মাঝে সুযোগ পেলে আমার প্রোফাইলে ভিজিট করার আমন্ত্রণ রইল। https://www.teachers.gov.bd/profile/jahirdu31


তাছলিমা আক্তার
১১ মার্চ, ২০২০ ০৮:১৭ অপরাহ্ণ

লাইক ও পূর্ণ রেটিং সহ শুভকামনা ও অভিনন্দন । আমার আপলোডকৃত ১ম শ্রেণির বাংলা বিষয়ের পাঠ ১০ ( ঋ ) কনটেন্ট দেখে লাইক ও রেটিংসহ মূল্যবান মতামত প্রদানের অনুরোধ রইল ।https://www.teachers.gov.bd/profile/taslimahtran


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৬ অপরাহ্ণ

Thanks Mam


লাইলী আক্তার
০৯ মার্চ, ২০২০ ০৮:০৫ অপরাহ্ণ

লাইক এবং পূর্ণ রেটংসহ শুভকামনা। আমার কনটেন্ট দেখে লাইক, মতামত এবং রেটিং দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৬ অপরাহ্ণ

Thanks Mam


মোঃ মিজানুর রহমান
০৭ মার্চ, ২০২০ ০৮:২০ অপরাহ্ণ

আসসালামু আলাইকুম। ডিয়ার মুজিব বর্ষের শুভেচ্ছা । শুভেচ্ছা-অভিনন্দন ও শুভকামনা। আমার কনটেন্টগুলো দেখে রেটিং, লাইক ও কমেন্ট দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৬ অপরাহ্ণ

Thanks Sir


ননীগোপাল রায়
০৬ মার্চ, ২০২০ ০৯:৪৪ অপরাহ্ণ

লাইক ও রেটিংসহ শুভকামনা। আমার কন্টেন্ট দেখার আমন্ত্রন রইল।


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৭ অপরাহ্ণ

Thanks Sir


গোলাম ফারুক
০৬ মার্চ, ২০২০ ০৮:৫৩ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা, শ্রদ্ধেয় প্যাডাগজি স্যার , রেটার মহোদয় , সেরা কনটেন্ট নির্মাতাগণ , সেরা উদ্ভাবক , সেরা নেতৃত্ব ,বাতায়নের সকল স্যার- ম্যামগণ দয়া করে আমার কন্টেন্ট দেখে মতামত ও পরামর্শ দিবেন। ভালো লাগলে লাইক এবং রেটিং দিবেন। সকলকে ধন্যবাদ । গোলাম ফারুক ICT4E জেলা অ্যাম্বাসেডর ,জামাল পুর । বাতায়ন লিঙ্ক https://www.teachers.gov.bd/profile/glm.farukict


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৭ অপরাহ্ণ

Thanks Sir


মোছাঃ মরিয়ম খাতুন
০৫ মার্চ, ২০২০ ০৭:৫৭ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিং সহ শুভ কামনা রইল। আমার কনটেন্ট দেখার অনুরোধ রইল।


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৭ অপরাহ্ণ

Thanks Sir


মোঃ শহিদুল ইসলাম
০৩ মার্চ, ২০২০ ০৮:০২ অপরাহ্ণ

পূর্ণ রেটিংসহ আপনার জন্য শুভ কামনা । আমার ছবিতে ক্লিক করে আমার কনটেন্টগুলো দেখে লাইক কমেন্ট এবং রেটিংসহ মুল্যবান মতামত প্রদানের জন্য বিনীত অনুরোধ রইল।আমার আইডি shahidulgdm@gmail.com


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৭ অপরাহ্ণ

Thanks Sir


আব্দুল্লাহ আত তারিক
০২ মার্চ, ২০২০ ০৫:৩৮ অপরাহ্ণ

মুজিব বর্ষের শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইলো । ভালো থাকুন সব সময় । শুভ কামনা রইলো আপনার জন্য।


মোঃ হাসনাইন
১৬ মার্চ, ২০২০ ০২:৪৭ অপরাহ্ণ

Thanks Sir