Loading..

প্রকাশনা

৩০ জুলাই, ২০২০ ১০:০৪ অপরাহ্ণ

'বাদুড়ের পথ চলা', যতীন্দ্র মোহন দাশ,প্রধান শিক্ষক,শান্তিপুর সপ্রাবি,সুনামগঞ্জ সদর,সুনামগঞ্জ।

‘বাদুড়ের পথ চলা’

যতীন্দ্র মোহন দাশ

প্রধান শিক্ষক

শান্তিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

সুনামগঞ্জ সদর।

 

আমরা জানি বাদুড় চোখে দেখতে পায় না। তাহলে প্রশ্ন হলো বাদুড় পথ চলে কীভাবে? প্রতিধ্বনি। হ্যাঁ প্রতিধ্বনির সাহায্যে বাদুড় পথ চলে। বাদুড়দের সারা শরীরে রয়েছে অসংখ্য শ্রাব্যকোষ।সে অনেক দূরের শব্দ অনেক তাড়াতাড়ি শুনতে পায়। তাদের শ্রাব্যসীমা প্রায় এক লক্ষ Hz পর্যন্ত। আবার তারা শব্দ উৎপন্ন করতে পারে এক লক্ষ Hz পর্যন্ত। তাদের এ সব উৎপন্ন শব্দ তাদের পথ চলার সময় যদি কোনো কিছু থাকে তবে সেখানে বাধা পেয়ে ফিরে আসে। ফলে সে বুঝতে পারে সামনে বাধা রয়েছে। তাই বাদুর সে দিকে যায় না। তারপর এভাবে প্রতিধ্বনির মাধ্যমে সে তার পথ খুঁজে পায়। 

আরো দেখুন